ঢাকা, বুধবার, ১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং | ২৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

আগৈলঝাড়ায় ছাত্রী গণধর্ষণ মামলার পলাতক আসামী

অপূর্ব লাল সরকার, আগৈলঝাড়া (বরিশাল) থেকে :
প ম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে গণধর্ষণ শেষে মারধরের পর উলঙ্গ ভিডিও ধারণ করে তা ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলার পলাতক আসামী রাজিহার ইউপি সদস্য শামীম তালুকদারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলার সেরাল গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

 

মামলার সূত্র মতে, উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের কান্দিরপাড় গ্রামের কুয়েত প্রবাসীর কন্যা স্কুল ছাত্রী (১৪) তার প্রতিবেশী বন্ধু লিমন, নয়ন ও ফেরদৌসদের সাথে নৌকাযোগে গত ১৮ সেপ্টেম্বর দুপুরে পার্শ¦বর্তী বিলে শাপলা তুলতে যায়। এসময় চেঙ্গুটিয়া গ্রামের মাইনউদ্দিন সরদার, মিজানুর রহমান সরদার, আকবর সরদার ও মিলন হাওলাদার জোরপূর্বক চৌদ্দমেধা বিলের একটি নির্জন উঁচু জমিতে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে স্কুল ছাত্রীসহ ওই তিন বন্ধুকে ইউপি সদস্য শামীম তালুকদার বেদম মারধর করে চারজনকেই উলঙ্গ করে ছাত্রীকে ধর্ষণ করিয়ে মোবাইল ফোনে তা ভিডিও ধারণ করে। পরবর্তীতে ওই ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে তিন বন্ধু ও ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রীর পরিবারের কাছ থেকে ইউপি সদস্য শামীম তালুকদার মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়। মারধরে গুরুতর আহত ফেরদৌস দীর্ঘদিন ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলো।
আগৈলঝাড়া থানার ওসি আ. রাজ্জাক মোল্লা জানান, এ ঘটনায় ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রী বাদী হয়ে গণধর্ষণ, ভিডিও ধারণ ও মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে রাজিহার ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বর শামীম তালুকদার ও তার সহযোগী মুন্না তালুকদারসহ আটজনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন (যার নং- ১০/২৭-০৯-১৭)।

 

ওই মামলায় শামীম তালুকদারকে আসামী করায় গত ১৩ অক্টোবর শামীমের বাবা মজনু তালুকদার, মা শেফালী বেগম, শামীমের স্ত্রী সাথী বেগম ধর্ষিতা শিক্ষার্থীর বাড়ি গিয়ে ধর্ষিতা ও তার মা’কে মামলা তুলে নিতে বিভিন্ন ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শণ করেন। ওই ঘটনায় ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে উল্লেখিত তিন জনের বিরুদ্ধে ১৫ অক্টোবর আগৈলঝাড়া থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন, যার নং- ৬৬০। এছাড়াও শামীমের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) আব্দুর রহমান ৫ ডিসেম্বর মঙ্গলবার রাতে মামলার পলাতক আসামী ইউপি সদস্য শামীম তালুকদারকে পূর্ব সেরাল গ্রাম থেকে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতারকৃত শামীম পুলিশের কাছে মামলা ও এলাকার বিভিন্ন বিষয়ে চা ল্যকর তথ্য প্রদান করেছে।

 

মামলার বাদী ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রী জানায়, মামলা প্রত্যাহারের জন্য আসামীদের লোকজন তাকে ও তার পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন ধরণের ভয়ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে। এ জন্য তারা চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছেন। বুধবার দুপুরে গ্রেফতারকৃতকে বরিশাল আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়। মামলার প্রধান আসামী মুন্না তালুকদার বর্তমানে জেলহাজতে রয়েছে।

সারাদেশ এর আরও খবর
Translate »