প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :                বর্তমান সময়ে বলিউডের অন্যতম আলোচিত জুটি রণবীর সিং ও দীপিকা পাড়ুকোন। দীর্ঘদিন ধরেই এই জুটিকে নিয়ে প্রেমের গুঞ্জন চলছে।

 

 

 

 

 

তবে দু’জনের কেউই প্রেমের বিষয়ে কোনো ধরনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেননি। কিন্তু প্রতিনিয়ত তাঁদের পারস্পরিক সম্পর্কের রসায়ন প্রেমের ইংগিতই দিচ্ছে।

 

 

 

 

 

 

রণবীর-দীপিকার প্রেমের গুঞ্জন সত্য হলেও দীপিকাই রণবীরের প্রথম প্রেম নয়। শুধু শোবিজে নয়, স্কুল কলেজেও বেশ রোম্যান্টিক ছিলেন রণবীর।

 

 

 

 

 

 

রণবীরের প্রথম প্রেমের নাম অহনা দেওল। দেওল শুনেই বোঝা যায় বিখ্যাত দেওল পরিবারের মেয়ের সঙ্গেই প্রেমে জড়িয়েছিলেন রণবীর।

 

 

 

 

 

 

অহনা দেওল ধর্মেন্দ্র ও হেমা মালিনীর কন্যা। তবে তিনি এশা, সানি ও ববি দেওলের মতো অতটা পরিচিত নয়। কারণ পর্দার আড়ালেই ছিলেন অহনা।

 

 

 

 

 

 

 

রণবীর ও অহনা মুম্বাইয়ের ‘হাসারাম রিঝুমাল কমার্স অ্যান্ড ইকোনমিক্স’ কলেজে একসঙ্গে পড়তেন। সে সময় দু’জনের মধ্যে বেশ সখ্যতা গড়ে ওঠে। একপর্যায়ে তাঁরা একে অপরের প্রেমে পড়েন।

 

 

 

 

 

 

সে সময় তারকা পরিবারের সন্তান হিসেবে অহনা ছিলেন বেশ পরিচিত। অপরদিকে রণবীর তখনো তারকা হয়ে ওঠেন নি। এরপর রণবীর কলেজের গণ্ডি পেরিয়ে উচ্চশিক্ষার্থে আমেরিকায় পাড়ি জমান। আর তখন থেকেই অহনার সঙ্গে রণবীরের দূরত্ব বাড়তে থাকে।

 

 

 

 

 

 

রণবীর আমেরিকা চলে গেলে, অহনার মনে জায়গা করে নেয় বলিউডের আরেক জনপ্রিয় মুখ আদিত্য রায় কাপুর। আদিত্যও তাঁদের সঙ্গে একই কলেজে পড়তেন।

 

 

 

 

 

আদিত্যকে পেয়ে রণবীরের সঙ্গে সম্পর্কের ইতি টানেন অহনা। প্রায় ৪ বছর চুটিয়ে প্রেম করার পর একসময় আদিত্যের সঙ্গেও সম্পর্ক ছিন্ন করেন।

 

 

 

 

 

 

দীর্ঘদিন পরিচালক সঞ্জয়লীলা বানসালির সহকারী হিসেবে কাজ করেছিলেন অহনা। এরপর কাজ, প্রেম সবকিছুর পাট চুকিয়ে বৈভব ভোরা নামক এক ধনাঢ্য ব্যবসায়ীকে বিয়ে করে সংসারে থিতু হন অহনা দেওল।