শরীয়তপুর জেলার গোসাইরহাট উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ইদিলপুর ইউনিয়নের কৃতি সন্তান, বিশিষ্ট সমাজ সেবক, ব্যবসায়ী, শিক্ষানুরাগী, জনতার নয়নের মনি, কর্মী বান্ধব, দুঃখি মানুষের আশ্রয় স্থল, জনবান্ধব, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ও ইদিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের (পদকপ্রাপ্ত) সফল চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসেন শিকারী সারাজীবন মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চান। একই সাথে সুযোগ পেলে সেবার মান আরও বাড়াতে চায়। এজন্য তিনি সকলের দোয়া ও আর্শিবাদ করেছেন।

 

 

সম্প্রতি সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে ইদিলপুর ইউপি’র চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসেন শিকারী বলেন, আমি মানুষের কল্যাণে ও এলাকার উন্নয়নের জন্য কাজ করে চলছি। আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে এলাকার রাস্তাঘাট, ব্রিজ, কালভাট, শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। আর সারাজীবন মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চাই। তাই সুযোগ পেলে সেবার মান আরও বাড়াতে চাই। আরও সুযোগ পেলে গোসাইরহাট বাসীর সেবা করতে চাই। এজন্য সকলের দোয়া ও আর্শিবাদ কামনা করছি। তিনি আরও বলেন, জনগণ আমাকে ভালোবাসে। তারা সর্বদা আমার পাশে আছে। এছাড়া আমি জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। কারণ তারা আমাকে বিপুল ভোটে

 

 

চেয়ারম্যান নির্বাচিত করে মানুষের জন্য কাজ করার সুযোগ দিয়েছেন। এজন্য আমি তাদের কাছে ঋনী। তাই আশাকরি তাদের দোয়া ও আর্শিবাদ নিয়ে আমি আরও এগিয়ে যাবো। তাদের কাঙ্খিত স্বপ্ন পূরণ করবো। আর আমি দেশকে ভালোবাসী। তাই সর্বদা জনগণের পাশে থেকে তাদের জন্য ও এলাকার উন্নয়নে কাজ করে চলছি। এই কাজের ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। এ জন্যও সকলের সার্বিক সহযোগিতা ও পরামর্শ দাবি করছি।

 

 

এদিকে, এলাকার অনেক জনগণ বলেন, এলাকার উন্নয়নে ও মানুষের কল্যাণে ব্যাপক ভাবে কাজ করে চলছেন, জনতার নয়নের মনি, কর্মী বান্ধব, দুঃখি মানুষের আশ্রয় স্থল ও জনবান্ধব চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসেন শিকারী। এছাড়া আরও বেশী বেশী কাজ করার চেষ্টা চালাচ্ছেন। তাই এলাকার ব্যাপক উন্নয়নের স্বার্থে তার মতো মানুষেরই প্রয়োজন। আমরা অতীতে তার সঙ্গে ছিলাম, বর্তমানে আছি ও ভবিষ্যতেও থাকবো।