প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :          পরবর্তী সংসদ নির্বাচনে দাড়াচ্ছেন সাকিব-মাশরাফি। এ নিয়ে কয়েক মাস ধরে সোস্যাল মিডিয়ায় ,পত্র-পত্রিকায় আলোচনা ,সমেলোচনা । সব জল্পনা কল্পনা দূর করে আজ এক তথ্য জানালেন সাংবাদিকদের পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল।

 

 

 

 

 

আজদুপুরে একনেক বৈঠক শেষে বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল সাংবাদিকদের বলেন,আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবেন বাংলাদেশের ওয়ানডে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরফি বিন মর্তুজা এবং টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

 

 

 

 

 

এ সময় পরিকল্পনামন্ত্রী অারও বলেন, ‘মাশরাফি নির্বাচন করতে পারেন, করলে আপনারা ভোট দেবেন’ তবে কোন দল থেকে নির্বাচন করবেন সেটি বলেননি মন্ত্রী। এদিকে কোন আসন থেকে সাকিব আল হাসান নির্বাচনে দাঁড়াচ্ছেন তাও নিশ্চিত করে জানাননি পরিকল্পনামন্ত্রী।

 

 

 

 

 

মন্ত্রী আরও বলেন, আগামী নির্বাচনে সবাই তাকে (মাশরাফি) সহায়তা করবেন। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, যদি বিএনপি থেকেও সে দাঁড়ায় তারপরও তাকে সহায়তা করবেন। কোন আসন থেকে নির্বাচন করবেন সেটি এখন বলা যাবে না।

 

 

 

 

 

এটি পরে জানানো হবে তিনি জানান , আমার ভোট ব্যাংক হলো যারা ক্রিকেট পছন্দ করেন। আমি যখন নির্বাচন করি ৪৮ বছর বয়সে, তখন আকরাম খানসহ সবাই আমার নির্বাচনী এলাকায় গিয়েছেন।

 

 

 

 

 

এখন মাশরাফি, সাকিব অনেক কম বয়সে নির্বাচন করবে। আমি ক্রিকেটের শীর্ষ পদে ছিলাম, আবার পদত্যাগও করেছি। আমি পদত্যাগ না করলে ক্রিকেট শেষ হয়ে যেত। আইসিসিতে এখন খারাপ লোকগুলো আর নেই, এটা আমাদের সবার বিজয়।

 

 

 

 

 

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল যে তথ্য দিলেন এ বিষয়ে মাশরাফি, সাকিব এখোনো কোন মন্তব্য করেননি ।তবে দেখার বিষয় পরিকল্পনামন্ত্রীর এ কথা বাস্থবে রুপ নেয় কিনা তার জন্য আরও কয়েক মাস অপেক্ষা করতে হবে।

 

 

 

 

 

 

আসন্ন সংসদ নির্বাচনে মাগুরা থেকে অংশ নিতে পারেন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ওপর দিকে নড়াইল থেকে সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। আর দুজনেরই প্রতিক হবে নৌকা।