প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:    নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন তরুণী।  আমি একজনকে অনেক অনেক ভালোবাসি। কিন্তু সম্পর্কের পর জানতে পারি সে একটা প্লেবয়, তার অনেক মেয়ের সাথে সম্পর্ক, শারীরিক সম্পর্কও ছিলো। আমার এত বিশ্বাস ছিলো যে আমি ওকে ভালোবাসা দিয়ে শুধরে নিবো।

 

 

 

 

 

১ বছরে অনেক অত্যাচার সহ্য করেও হাল ছাড়িনি কিন্তু ওর ভালো হওয়ার কোন নাম নেই। ও ছোটখাটো ব্যাপারকে টেনে বড় করে আমার দোষ দেখায়। আর সব কুকর্মের জন্য আমাকে দায়ী করে।

 

 

 

আমাকে ও ছাড়েও না আবার সিরিয়াসও হয়না, ওর উপর অতিষ্ঠ হয়ে আমি সরে যেতে চাইলে ও আমাকে নানান ইমোশনাল ব্ল্যাকমেইল করে।

 

 

 

 

আমি ওকে ছাড়া থাকতে পারিনা তাই অনেক সময় মনের কাছে হার মেনে ওর অনেক অন্যায় আবদারও মেনে নেই। ও আমাকে অনেক শারীরিক, মানসিক অত্যাচার করে তবুও চুপ থাকি ভালোবাসার জন্য।

 

 

 

 

আমি এমন কিছু বাকি নেই চেষ্টা করিনি ওর ভালোবাসা পাওয়ার জন্য। কিন্তু কিছুতেই কাজ হচ্ছেনা। ও খুব ভালো করেই যানে ওকে কতটা ভালোবাসি, আমার ভালোবাসাটাকে সে আমার দুর্বলতা হিসেবে ব্যবহার করছে।

 

 

 

 

ও শুধু ওর স্বার্থের সময় আমার সাথে ভালো ব্যবহার করে। ও সারা রাত আমাকে ব্ল্যাকলিস্ট করে অন্য মেয়েদের সাথে কথা বলে, আমি কষ্ট সহ্য করতে না পেরে ঘুমের ঔষধ খেয়ে ঘুমাতে চাই, তাও ঘুম আসেনা।

 

 

 

 

 

আমি চিৎকার করে কাঁদি দিন রাত। আমি অস্বাভাবিক হয়ে গেছি ওর থেকে কষ্ট পেতে পেতে। কয়েকবার আত্মহত্যা করতেও চেষ্টা করেছি। আমি তিলে তিলে শেষ হয়ে যাচ্ছি।

 

 

 

 

এভাবে চলতে থাকলে আমি খুব তাড়াতাড়ি মারা যাবো এটা নিশ্চিত। সবাই শুধু বলে ছাড়তে কিন্তু এটা কেউ বুঝে না ছাড়তে পারলে কি কেউ নিজেকে তিলে তিলে শেষ করে?

 

 

 

 

আমি স্বাভাবিক হয়ে বাঁচতে চাই, আমার আর মাথা কাজ করছেনা, আমি চোখে কিছুই দেখছিনা। পারলে আমাকে একটা পথ দেখান।

 

 

 

 

পরামর্শ

জীবনটা সিনেমা না, আপনি নিজের জীবনকে সিনেমা ভাবতে শুরু করলে তো মুশকিল আপু। সিনেমায় প্লেবয়রা ভালো মানুষ হয়ে যায়, বাস্তবে আসলে সেটা অসম্ভব।

 

 

 

 

যে মানুষ আপনাকে বিন্দুমাত্র ভালোবাসে না, অন্য মেয়ে নিয়ে পড়ে থাকে, সামান্য তম আত্মসম্মান থাকলেও তো তাঁকে ভালবাসতে পারার কথা না। সামান্য একটা ছেলের জন্য মরে যেতে চান।

 

 

 

 

 

যে মা বাবা এত ভালোবাসা দিয়ে পেলে পুষে বড় করলো, তাঁদের কোনই দাম নেই? আমি আজীবনই আপু লক্ষ্য করেছি, মা বাবার চাইতে বেশি দাম প্রেমিক/প্রেমিকাকে দিলে তাঁর পরিণাম অত্যন্ত ভয়াবহ হয়।

 

 

 

 

 

নিজেকে বাঁচাতে চাইলে একটি পথ খোলা, সেই ছেলেটিকে ছারতে হবে। যদি না পারেন, এভাবেই ধুঁকে ধুঁকে শেষ হয়ে যাওয়া আপনার নিয়তি, আর আপনি স্বেচ্ছায় এই কাজ করছেন।

 

 

 

 

 

 

স্বপ্নের দুনিয়া ত্যাগ করুন আপু। আর ঘুমের ওষুধ খাওয়া বন্ধ করে একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ দেখান। কোনকিছু অবসেশনে পরিণত হওয়াও একটা মানসিক সমস্যা!