প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:     ঈদকে সামনে রেখে রাজধানী থেকে বাড়ি ফেরা যাত্রীদের চাপ বেড়ে যাওয়ার কারণে মহাসড়কগুলোতে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। গাজীপুরের ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানজট রয়েছে।

 

 

 

 

 

টঙ্গী থেকে গাজীপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত থেমে থেমে চলছে যানবাহন। ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কেও একই চিত্র। আবার সময়মত বাস না আসার কারণে ভোগান্তিতে রয়েছেন উত্তরবঙ্গগামী যাত্রীরা।

 

 

 

 

 

ঈদে বাড়তি মানুষের চাপ লেগেছে বাস টার্মিনালগুলোতে। সেই সুযোগে বাসের অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে, রাস্তার জ্যামের ভোগান্তির মতো সমস্যাতো আছেই। তবে বাড়ি ফেরার আনন্দে এসব ভোগান্তিকে সহজে মেনে নিয়েই ফিরছেন রাজধানীবাসী।

 

 

 

 

 

 

সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, সকাল থেকে ঢাকা টাঙ্গাইল মহাসড়কের চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকা দিয়ে যানবাহন চলাচলে কিছুটা বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে। গাড়ির দীর্ঘ সারি রয়েছে কোনাবাড়ি এলাকায়।

 

 

 

 

 

সকাল থেকে ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কের টঙ্গী থেকে চান্দনা চৌরাস্তা পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার সড়কে থেমে থেমে যানবাহন চলছে। যানবাহনের বাড়তি চাপ এবং সরু সড়কের কারণে এ যানজট তৈরি হচ্ছে।

 

 

 

 

আজ বুধবার রাজধানীর মহাখালী বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা যায়, ভোর থেকেই যাত্রীরা ভিড় করছেন টার্মিনালটিতে। কেউ বসে আছেন অগ্রিম টিকিট কাটা বাসের অপেক্ষায় আর কেউবা আছেন টিকিট পাওয়ার অপেক্ষায়।

 

 

 

 

টাঙ্গাইলের নিরালা ও বিনিময় পরিবহন সাধারণ সময়ের ভাড়ার চেয়ে ২০ থেকে ৩০ টাকা বেশি নিচ্ছে। এছাড়া ময়মনসিংহ, শেরপুর ও জামালপুর রুটের বাসগুলোর ক্ষেত্রে ৫০ টাকা বেশি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে। অন্যদিকে উত্তরবঙ্গ রুটের বাসগুলোর ক্ষেত্রে অগ্রিম টিকিট দেওয়া থেকে শুরু করে ভাড়া পর্যন্ত ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেন যাত্রীরা।

 

 

 

 

 

অভিযোগ রয়েছে, কাউন্টার থেকে ইচ্ছে করেই বিক্রি হয়ে গেছে বলে অগ্রিম টিকিট আটকে রাখা হচ্ছে। এরপর যাত্রীর চাপ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সঙ্গে অতিরিক্ত দামে বিক্রি করা হচ্ছে।

 

 

 

 

 

তবে হাইওয়ে পুলিশ বলছে, মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নিয়ে যানজট নিরসনে কাজ করছে তারা। বাড়তি যানবাহনের চাপ এবং অপ্রশস্ত সড়কের কারণে এই অবস্থা সষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে হাইওয়ে পুলিশ।