প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:    লাতিন আমেরিকার গ্রুপ থেকে আর্জেন্টিনা যে বিশ্বকাপের জন্য কোয়ালিফাই করবে, বেশির ভাগ ফুটবল বিশেষজ্ঞ সেটা আশাই করেননি। সেখান থেকে হ্যাটট্রিক করে দলকে রাশিয়ায় এনেছেন লিওনেল মেসি।

 

 

 

 

ক্রোয়েশিয়ার কাছে লজ্জার হারের পর যখন অনেকেই আর্জেন্টিনার শোকগাঁথা লিখতে বসেছিলেন, তখন নাইজিরিয়াকে হারিয়ে নক আউটে পৌঁছেছেন মেসিরা। আফ্রিকার এই দল মেসিদের যথেষ্ট বেগ দিলেও কিছুটা হার না মানা মানসিকতা এবং কিছুটা ভাগ্যদেবীর সাহায্যে প্রি কোয়ার্টারে পৌঁছেছে আর্জেন্টিনা।

 

 

 

 

 

ক্রোয়েশিয়ার কাছে হারের পর একদম ভেঙে পড়েছিল আর্জেন্টিনা শিবির। আত্মবিশ্বাসটাই যেন উড়ে গিয়েছিল দল থেকে। নাইজিরিয়াকে হারিয়ে সেটাই ফিরে এসেছে দি’মারিয়াদের মধ্যে। বিশ্বাস ফিরে পেয়ে নতুন করে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করতে মরিয়া হিগুয়াইনরা।

 

 

 

 

 

মেসিদের সবচেয়ে বড় সুবিধা, তাদের কাছ থেকে দেশের সমর্থকরাও বিশাল কিছু প্রত্যাশা করছেন না। এখনও পর্যন্ত তাদের দেখে ফেভারিটদের তালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন বেশির ভাগ বিশেষজ্ঞই। প্রত্যাশার চাপ না থাকায় অনেক চাপমুক্ত থেকে খেলতে পারবেন মেসিরা।

 

 

 

 

প্রথম দুই ম্যাচে তেমন কিছুই করতে পারেননি। কিন্তু মহা গুরুত্বপূর্ণ নাইজিরিয়া ম্যাচে গোল করে ছন্দে ফিরেছেন লিও মেসি। আর ছন্দে থাকা মেসি যে কতটা ভয়ঙ্কর, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

 

 

 

 

 

এ বার পালা নক আউটের। যেখানে মেসিদের প্রথম প্রতিপক্ষ ফ্রান্স। তেমন একটা ছন্দে কিন্তু নেই পোগবারাও। তাই প্রি কোয়ার্টারের বাধা পেরতে সমস্যা হওয়ার কথা নয় আর্জেন্টিনার।

 

 

 

 

 

তবে এসবই অনুমান, খাতা কলমের হিসাব নিকাশ। আর কয়েক ঘণ্টা পরেই জানা যাবে কতটা এগুলো মেসিরা।