প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:    মেয়ে বড় হবার সাথে সাথেই মায়েদের তাকে নিয়ে নানারকম চিন্তাভাবনা শুরু হয়ে যায়। দশ বা এগারো বছর বয়স থেকে যখন তাদের বয়ঃসন্ধিকালের আরম্ভ হয়, তখন থেকেই মেয়েদের প্রায় একটা নতুন রকম যাত্রা শুরু হয়ে যায়, যে যাত্রাটা তাদের এতদিনের বেড়ে ওঠা, চারপাশের জগত থেকে প্রায় অনেকটাই আলাদা হয়ে যায়।

 

 

 

 

শরীর-মন তখন অন্যভাবে বেড়ে ওঠে। আর এই সময়ে ঠিক মাপের ব্রা কিনে দেওয়া উচিৎ।কত বছর বয়স থেকে মেয়েদের ব্রা পরা উচিত?

 

 

 

 

 

মোটামুটি ভাবে মেয়েদের বয়ঃসন্ধি এগারো বা বারো বছর বয়স থেকেই শুরু হয়। তার খানিক আগে থেকেই তাদের শরীরের বৃদ্ধি হতে শুরু করে। স্তন সুগঠিত হতে শুরু করে। স্তন গঠিত হতে শুরু করেছে কিনা তা আপনি বুঝতে পারবেন যখন বক্ষদেশ আস্তে আস্তে বাড়তে শুরু করবে।

 

 

 

 

স্তনবৃন্ত সুগঠিত হতে শুরু করবে। এই সময়ে বুকের ওই অংশে বেশ ব্যথা অনুভূত হয়। এই সময়ে মেয়েরা স্বাভাবিকভাবেই রাস্তায় বেরোলে আচমকাই বেশী লোকের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে থাকে যা তাদের নিজেদের কাছেও অস্বস্তির কারণ হয়ে ওঠে।

 

 

 

 

 

হয়ত দেখবেন কোনো কোনো মেয়েকে এগারো বছর বয়স থেকেই ব্রা পরতে হয়, তার শারীরিক গঠন ও বৃদ্ধির কারণেই। আবার হয়ত দেখবেন কোনো কোনো মেয়ে প্রথম ব্রা পরতে শুরু করে প্রায় চোদ্দ বছর বয়সে এসে।

 

 

 

 

 

শারীরিক গঠন প্রত্যেকের নিজস্ব ব্যাপার। তাই যার যখন প্রয়োজন তার তখনই ব্রা পরা উচিত। বন্ধুরা পড়ছে অথচ আমি পড়ছি না এই নিয়ে অযথা চিন্তা না করাই ভালো।

 

 

 

 

 

প্রথম ব্রা

প্রথম ব্রা বেশ ভাবনাচিন্তা করেই কেনা উচিত। ভালো কোয়ালিটির নরম ব্রা আপনার মেয়েকে কিনে দিন। বেশী ডিজাইন করা বা লেস দেওয়া ব্রা প্রথমে না পরাই ভালো। মেয়েকে স্পোর্টস ব্রা পরান বেশ কিছুদিন ধরে। কারণ ওই প্রথম বাড়ার সময় স্তন খুবই নরম হয়।

 

 

 

 

 

 

স্পোর্টস ব্রা নরম হয়, ফলে আরামদায়কও বটে। এছাড়া ভালো করে তার সাইজ জেনে সাইজ অনুযায়ী সঠিক মাপের ব্রা কেনাও উচিত। ছোটবেলা থেকেই বেশী টাইট বা বেশী আলগা ব্রা স্তনের আকার নষ্ট করে দেয়। ফলে মাপের দিকে খেয়াল রাখুন।