প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:       ২০১৪ সালের ইংল্যান্ড সফরে নিজের জাত চেনাতে ব্যর্থ হন বিরাট কোহলি। এখনও পর্যন্ত ঝকঝকে ক্যারিয়ারে সেই সফরটা একটা কালো দাগের মতো। এবার কি হবে?

 

 

 

 

বিরাট নিজে বলছেন তিনি রান পান না পান সেটা বড় কথা নয়, দল জিতলেই হলো। সিরিজে ডান-হাতি এই ব্যাটসম্যানরে কড়া প্রতিদ্বন্দ্বী জেমস অ্যান্ডারসন অবশ্য তা বিশ্বাস করতে রাজি নন।

 

 

 

 

 

প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়াকে (পিটিআই) দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ইংলিশ পেসার বলেছেন, ‘আমার মনে হয় বিরাট মিথ্যা বলছে’। তার মতে ইংল্যান্ডের মাটিতে ভারতের জিততে গেলে বিরাটের ভাল খেলা তো অবশ্যই দরকারি। সেই সঙ্গে ৩৫ বছর বয়সী এই পেসার মনে করেন, বিরাটের মতো দুর্দান্ত ব্যাটসম্যান ও অধিনায়ক অবশ্যই ইংল্যান্ডে রান করতে চাইবেন।

 

 

 

 

 

 

২০১৪ ইংল্যান্ড সফর বিরাটের ক্যারিয়ারে একটা ময়লাদাগ অবশ্যই। ৬ ম্যাচে করেছিলেন মাত্র ১৩৪ রান। ২০১৬/১৭ সালের ফিরতি সিরিজে ঘরের মাঠে অবশ্য ওই ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধেই ৫ ম্যাচে করেছিলেন ৬৫৫ রান। কিন্তু তাতে ২০১৪ সালের কলঙ্ক মোচন হয়নি।

 

 

 

 

ভারতীয় অধিনায়কের বিরুদ্ধে অ্যান্ডারসন কিন্তু যথেষ্ট সফল। ২০১৪ সফরে তো বিরাটকে নাস্তানাবুদ করে ছেড়েছিলেন। বিরাটের ৬ ইনিংসের মধ্যে অ্যান্ডারসনই তাকে তুলে নিয়েছিলেন ৪ বার। ২০১২ সালেও তারকা ব্যাটসম্যানকে তিনি আউট করেছিলেন ৫ বার। তবে ২০১৬ সালের ভারত সফরে থমকে গিয়েছিল তার এই সাফল্য। তিন টেস্টে মাত্র ৪ উইকেট পান এই পেসার।

 

 

 

 

এই সফরে বিরাটের সফল হওয়ার যথেষ্ট সম্ভাবনা আছে বলে মনে করছেন অ্যান্ডারসন। তিনি জানিয়েছেন, এখনকার দিনে ক্রিকেটাররা ম্যাচের ফুটেজ ও নিজেদের অতীত অভিজ্ঞতা দুই থেকেই নিজেদের তৈরি করেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

বিরাটও ২০১৪ সাল থেকে অনেক কিছুই ভুল ধরতে পেরেছেন, সেব্যাপারে জেমস নিশ্চিত। অ্যান্ডারসনের ধারণা প্রয়োজনীয় বদলটার জন্য তিনি ভালই খাটছেন।

 

 

 

 

 

 

আজ মঙ্গলবার কাউন্টি দল এসেক্সের বিপক্ষে সাদা পোশাকের প্রস্তুতি ম্যাচে নামবে ভারত দল। আগামী ১ আগস্ট থেকে শুরু হবে পাঁচম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচটি।