প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:       আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডি কার্যালয়ে ভাংচুরের ঘটনায় দুইটি মামলা করা হয়েছে।সোমবার সন্ধ্যায় ধানমন্ডি থানায় মামলা দুটি করেন দলের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া।

 

 

 

 

 

৪-৫ জুলাই দলের কার্যালয়ে হামলা এবং নেতাকর্মীদের আহত করার ঘটনায় কারও নাম উল্লেখ না করে মামলা দুটি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আব্দুল লতিফ। হামলাকারীদের ভিডিও ও ছবি জমা দেয়া হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

 

 

 

 

 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত শনিবার আন্দোলনকারী কয়েকজনকে আওয়ামী লীগ ধানমন্ডি অফিসে মেরে রাখা হয়েছে এবং কয়েকজন নারীকে ধর্ষণ হয়েছে বলে গুজব ছড়ানোর পর শিক্ষার্থীরা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের দিকে এগিয়ে যায়।

 

 

 

 

 

একপর্যায়ে আওয়ামী লীগ কর্মী এবং শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এসময় হেলমেট পরা একদল যুবকও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। যাদের কয়েক জনের হাতে লাঠি ও আগ্নেয়াস্ত্রও ছিল। দেড় ঘণ্টা ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ার পর পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

 

 

 

 

 

তবে আধা ঘণ্টা পর আবারও ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কয়েক রাউন্ড টিয়ার শেল নিক্ষেপ করে পুলিশ।

 

 

 

 

 

 

দুই দফা সংঘর্ষের ঘটনায় দলের ১৭ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন এবং তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

 

 

 

 

 

 

পরে বিকেলে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের একটি দল ধানমন্ডি কার্যালয় ঘুরে এসে জানায়, তারা গুজব শুনে বিভ্রান্ত হয়েছিলেন।