প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:       সৃষ্টিকর্তা মানুষকে দুটো রূপ দিয়েছে, এক হলো পুরুষ আর দুই নারী। দুটি লিঙ্গের মানুষই আলাদাভাবে সুন্দর হয়ে থাকে। তবে এক্ষেত্রে নারীরা অধিক সুন্দরী হয়ে থাকে।

 

 

 

 

 

 

মেয়েদের রূপ যতোটা সহজ হয় ঠিক ততটাই ওদের মন বোঝা কঠিন। কারণ তারা কখন রেগে যায় আবার কখন ভালো মুডে থাকে তা বলা যায়না। তবে ১৮ থেকে ২০ বছরের মেয়েরা একটু লাজুক প্রকৃতির হয়ে থাকে। এর খারাপ ফায়দা ছেলেরা লুটে নেয়।

 

 

 

 

 

সমীক্ষায় দেখা গেছে মেয়েদের ২০ বছর বয়সটা যতোটা না গুরুত্বপূর্ণ তার থেকে বেশী গুরুত্বপূর্ণ ২০-৩০ বছরের মধ্যবর্তী সময়টা। কারণ সেই সময়ে তারা দুনিয়ার সবকিছু বুঝে উঠতে পূর্ণতা লাভ করে।

 

 

 

 

 

এই বছরে মেয়েরা নিজেদের সবচেয়ে বেশী যত্ন নেয়। তাই মেয়েদের ৩০ বছরের সময়কালটা বেশ গুরুত্বপূর্ণ। আজ আপনাদের এমনকিছু কথা বলবো যেগুলি আপনি মেয়েদের সম্পর্কে স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারবেন না।

 

 

 

 

 

আসলে ৩০ বছর বয়সে মেয়েদের মধ্যে তাদের ছোটোবেলা ফুটে উঠে। আর তার আগে মেয়েরা বেশীরভাগ সিদ্ধান্ত ভেবে চিনতে নেয়না।

 

 

 

 

কিন্তু এই ৩০ বছর পর তারা সব কিছু ভেবে চিন্তে সিদ্ধান্ত নিতে পারে। আর এই বয়সে তারা সব কিছু সামলে নিতে পারে কোন জিনিসের তাদের আর অসুবিধা হয় না।

 

 

 

 

 

 

এই বয়সে মেয়েদের আত্মবিশ্বাস সব থেকে বেশী বেড়ে যায়। আর এই বয়সে তারা অনেক ছোটো ছোটো জিনিস নিয়ে ঝগড়া করা ছেড়ে দেয় যেগুলি তারা আগে করত।

 

 

 

 

 

আর এই বয়স তারা তাদের ভুল গুলি বুঝে সেগুলিকে ঠিক করার কথা ভাবে। আসলে ৩০ নীচে তারা নিজের সব ভুল লুকিয়ে থাকে, এড়িয়ে চলে।

 

 

 

 

 

 

কিন্তু ৩০ বছর হওয়ার সঙ্গে তারা একদম পাল্টে যায়। তারা সবকিছু পারফেক্ট ভাবে করে থাকে। যা তাদের আচার আচরণ দেখলেই জ্ঞাত হওয়া যায়।