প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:        বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ছে না সানিয়া মির্জাকে। তিনি এখন অন্তঃস্বত্ত্বা। সন্তানকে নিয়ে তার নানা পরিকল্পনা। আগামী অক্টোবর মাসেই সানিয়ার কোল আলো করে আসছে নতুন অতিথি।

 

 

 

 

এমন সময়েই ট্রোলিংয়ের শিকার হলেন সানিয়া মির্জা। বরাবরই যে কারণে তাকে নেটিজেনরা একহাত নেয়, সেই জাতীয়তাবাদ ইস্যুতেই এবার সানিয়াকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলিং করার চেষ্টা করা হলো।

 

 

 

 

গতকাল মঙ্গলবার (১৪ আগস্ট) ছিল পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবস। সেই স্বাধীনতা দিবসেই অনেকে সানিয়া মির্জাকে ‘হ্যাপি ইন্ডিপেন্ডেন্স ডে’ উইশ করলেন।

 

 

 

 

সানিয়া জন্মসূত্রে ভারতীয় হলেও, তার স্বামী শোয়েব মালিক পাকিস্তানি। এই নিয়ে অতীতেও বহুবার তাকে কটাক্ষ সহ্য করতে হয়েছে। আবারও তাকে শুনতে হল কটাক্ষ।

 

 

 

 

এরপর সানিয়াও নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে স্পষ্ট লিখে দেন, ‘‘জ্বী না। আমি আর আমার দেশের স্বাধীনতা দিবস আগামীকাল। আর আমার স্বামী ও তার দেশের স্বাধীনতা দিবস আজ।

 

 

 

 

 

আশা করি আপনাদের বিভ্রান্তি দূর হয়েছে। আর হ্যাঁ, আপনাদের দেশের স্বাধীনতা দিবস কবে। মনে হচ্ছে, আপনারা ভীষণই বিভ্রান্তির মধ্যে রয়েছেন।’’

 

 

 

 

 

পাকিস্তানি ক্রিকেটার শোয়েব মালিককে বিয়ে করার কারণে এর আগেও প্রশ্নের মুখে পড়েছে সানিয়ার নাগরিকত্ব। ২০১৪ সালে তেলেঙ্গানার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর করা হয়েছিল সানিয়াকে।

 

 

 

 

 

 

এর পরেই এক রাজনৈতিক নেতা সানিয়াকে পাকিস্তানের ‘পুত্রবধূ’ বলে বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন। কোনও রাজ্যের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হওয়ার যোগ্য কিনা সানিয়া, তা নিয়েই প্রশ্ন তুলে দিয়েছিলেন তিনি।