প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:    আট বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে পাঁচ কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। যাদের বয়স নয় থেকে ১৪ বছরের মধ্যে। মোবাইলে পর্নোগ্রাফি দেখার দুইদিন পরই তারা এই অঘটন ঘটায়।

 

 

 

 

গত বৃহস্পতিবার ভারতের দেরাদুন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়। শুক্রবার অভিযুক্ত কিশোরদের পুলিশী হেফাজতে নেওয়া হয়। এরপর তাদের জুভেনিল কিশোর সংশোধন কেন্দ্রে পাঠানো হয়।

 

 

 

 

পুলিশ জানায়, ওই পাঁচ কিশোরের বাড়ি একই এলাকায়। ঘটনার দিন প্রতিবেশী শিশুটি তার বাড়ির সামনে খেলা করছিল। এসময় আশপাশে কেউ না থাকায় সুযোগ বুঝে শিশুটিকে তুলে নিয়ে অভিযুক্ত এক কিশোরের বাড়িতে ধর্ষণ করে।

 

 

 

 

 

সাহসপুর পুলিশ স্টেশনের ইনচার্জ নরেশ রাথোর জানান, অভিযুক্ত এক কিশোর পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি দেয়, ঘটনার দুইদিন আগে পাঁচ কিশোর একসঙ্গে পর্নো সিনেমা দেখে। এরপরই তারা এই অপরাধ সংঘটনের ফন্দি আঁটে।

 

 

 

 

 

তিনি আরও জানান, রবিবার অভিযুক্ত কিশোরদের জুভেনিল কোর্টের মাধ্যমে সংশোধন কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

 

 

 

 

 

এছাড়া কিশোরদের ব্যবহৃত মোবাইলটিও জব্দ করেছে পুলিশ। বর্তমানে শিশুটি পরিবারের কাছেই রয়েছে।