প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:     প্রকাশ্যে মূত্রত্যাগের জন্য লোহার রড ও ইট দিয়ে পেটানো হল তিনজনকে। তাঁদের মৃত্যুর মুখে ফেলে শহর ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করলেও ধরা পড়ে যায় তিন অভিযুক্ত। ভারতের দিল্লির রনহোলায় ঘটেছে এই ঘটনা।

 

 

 

 

 

তিন ব্যক্তিকে রাস্তায় রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রাই পুলিসে খবর দেন। সঙ্গেসঙ্গেই পুলিস এসে তিনজনকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। যার মধ্যে দু’‌জনের অবস্থা সঙ্কটজনক। জানা গেছে আক্রান্তদের নাম অজয়, ঋষি ও অনিল। অজয় ও ঋষি দুই ভাই। অনিল তাঁদের শ্যালক।

 

 

 

 

অজয় পুলিশকে জানিয়েছেন, একসঙ্গে নৈশভোজ করবেন বলে তিনি ও অনিল সোমবার বিকেলে পঞ্চশীল এনক্লেভে ঋষির অফিসে গিয়েছিলেন। অজয় ও অনিল অফিসের বাইরে মূত্রত্যাগ করতে গেলে তাঁদের বাঁধা দেন তিন যুবক। হেনস্থা করা হয় তাঁদের। তখনই ঋষি অফিস থেকে বেরিয়ে আসেন। দেখেন তাঁর ভাই ও শ্যালককে তিনজন ইট ও লোহার রড দিয়ে মারছে।

 

 

 

 

 

তিনি বাঁধা দিতে গেলে তাঁকেও মারধর করা হয়। তিনজন জ্ঞান হারালে অভিযুক্তরা এলাকা ছেড়ে পালায়। তিন অভিযুক্তকেই অবশ্য গ্রেপ্তার করেছে পুলিস।

 

 

 

 

 

ধৃতদের নাম সঞ্জীব, সুনীল ও রম্বির। তিনজনই ক্যাবচালক। মদ্যপ অবস্থায় তারা এই অপরাধ করেছে বলে স্বীকার করেছে।