প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:        ভারতের উত্তরপ্রদেশের পিলিভিট জেলার সিরসা সর্দা সারহাই গ্রামে বেশিরভাগ বাড়িতে এখনও টয়লেট নেই। স্থানীয় কর্মকর্তারা গ্রামবাসীকে নির্দেশ দিয়েছেন, মাঠে ঘাটে মলত্যাগের পর তা কোদাল দিয়ে মাটিচাপা দিতে, যাতে কারও চোখে না পড়ে। তাই এখন থেকে মলত্যাগের সময় শুধু পানিই নয় সঙ্গে কোদাল ও বেলচা নিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

 

 

 

 

 

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেছেন, আগামী বছর অক্টোবরের মধ্যে রাজ্যকে খোলা জায়গায় মলত্যাগ মুক্ত করতে হবে। অথচ পিলিভিটের প্রতিটি বাড়িতে টয়লেট তৈরির সময় নেই, নেই দরকারি টাকাও। এখনও তৈরি করা বাকি এক লাখ ৩৩ হাজার টয়লেট।

 

 

 

 

সিরসা সর্দা গ্রামে বাড়ির সংখ্যা ১০২ এর মত। কিন্তু ১০টার বেশি বাড়িতে টয়লেট নেই। সরকারি নির্দেশে বাধ্য হয়ে মলত্যাগের সময় পানির বোতলের পাশাপাশি কোদাল, বেলচা নিয়ে যেতে বাধ্য হচ্ছেন গ্রামবাসী।

 

 

 

 

 

গ্রাম প্রধান বলছেন, সরকার টয়লেট পিছু মাত্র ১২ হাজার টাকা দিচ্ছে। এত কম টাকায় টয়লেট তৈরি হয় না। কিছুদিন আগে তারা ৩৫টা টয়লেট তৈরির টাকা বরাদ্দ করেছে কিন্তু তা যথেষ্ট নয়। গ্রামের বেশিরভাগ মানুষই ক্ষেতে খামারে কাজ করেন, টয়লেট তৈরির সামর্থ্য নেই তাদের।

 

 

 

 

 

 

প্রশাসন জানিয়েছে, সার্ভে করে প্রথমে তারা সব থেকে দরিদ্র পরিবারগুলোকে চিহ্নিত করেছে। সেই বাড়িগুলোতে সরকার থেকে তৈরি হচ্ছে টয়লেট। যেহেতু সব পরিবারকে এভাবে সাহায্য করা সম্ভব নয়, তাই গ্রামবাসীদের বোঝানো হচ্ছে; যেন নিজেরাই বাড়িতে টয়লেট তৈরি করেন তারা।