প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:     সংবাদপত্রে নিজের কুমারিত্ব বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়ে তরুণী বলেছেন, তিনি এমন একজনের কাছে কুমারিত্ব বিক্রি করতে চান, যিনি একটি ভাল কাজের জন্য প্রকৃতভাবেই তাকে ১ হাজার ৫০০ পাউন্ড সাহায্য করতে পারবেন।

 

 

 

 

 

একটি ভাল কাজ করার জন্য ১ হাজার ৫০০ পাউন্ড প্রয়োজন ইউক্রেনের ১৮ বছর বয়সী এক শিক্ষার্থীর। তা সহজে জোগাড় করতে না পারায় নিজের কুমারিত্ব বিক্রির কথা ঘোষণা করেছেন তিনি।

 

 

 

 

 

 

ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউলিয়া নামের ওই তরুণী স্থানীয় ‘তরবিনকা’ নামের একটি সংবাদপত্রে নিজের কুমারিত্ব বিক্রির একটি বিজ্ঞাপন দিয়েছেন। প্রতিবেদনে বলা হয়, সম্প্রতি স্থানীয় ওই সংবাদপত্রে নিজের কুমারিত্ব বিক্রির বিজ্ঞাপন দিয়ে তরুণী বলেছেন, তিনি এমন একজনের কাছে কুমারিত্ব বিক্রি করতে চান, যিনি একটি ভাল কাজের জন্য প্রকৃতভাবেই তাকে ১ হাজার ৫০০ পাউন্ড সাহায্য করতে পারবেন।

 

 

 

 

 

ইউলিয়া বলেন, ‘আজ হোক বা কাল, আমাকে কুমারিত্ব বিসর্জন দিতেই হবে। কোনো মদের উৎসবে কুমারীত্ব হারানোর চেয়ে একটি ভালো কাজের উদ্দেশ্যে তা বিক্রি করাই ভাল।’ প্রতিবেদনে বলা হয়, সংবাদপত্রের যেখানে এই বিজ্ঞাপনটি প্রকাশিত হয়েছে, তার পাশে অ্যালার্ম ঘড়ি, পুরোনো জিনিসপত্র ও ব্যবসায়িক বিজ্ঞাপন রয়েছে। ইউলিয়ার বিজ্ঞাপনের শিরোনাম ‘ভার্জিনিটি ফর সেল’।

 

 

 

 

 

 

ওই বিজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ‘১৮ বছর বয়সী মিষ্টি মেয়ে, ছাত্রী। এমন একজন ব্যক্তির কাছে কুমারিত্ব বিক্রি করতে চাই, যিনি ১ হাজার ৫০০ পাউন্ড দিয়ে সাহায্য করবেন। মেলিটোপোল শহরে আমার পছন্দের কোনো জায়গায় আমরা দেখা করব। কুমারীত্ব বিক্রির অর্থ ফুর্তি বা বিনোদনের জন্য ব্যয় হবে না। এই অর্থ একটি ভাল কাজে ব্যয় করা হবে।’

 

 

 

 

প্রতিবেদনে বলা হয়, যারা উল্লিখিত শর্তে আগ্রহী, তাদের ইউলিয়ার সঙ্গে স্কাইপের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে। বিজ্ঞাপনের পাশে ইউলিয়ার একটি ছবিও দেয়া আছে।

 

 

 

 

 

ইউলিয়া বলেন, কুমারিত্ব বিক্রির বেলায় কোনো প্রতিযোগিতা হবে না। প্রকৃত ব্যক্তি পেলেই তিনি ‘হ্যাঁ’ বলে দেবেন। তিনি কুমারী কি না, এর প্রমাণ হিসেবে তিনি স্থানীয় হাসপাতালের প্রতিবেদন দেখাবেন। ঠিকঠাক হওয়ার পর যদি কেউ ঝামেলা করেন, এ জন্য তিনি নিরাপত্তারও ব্যবস্থা রাখবেন।

 

 

 

 

আলোচনা পাকাপাকি হওয়ার পর একজন ছেলেবন্ধু ওই ব্যক্তির সঙ্গে দেখা করে অর্থ সংগ্রহ করবেন। অর্থ সংগ্রহের এক ঘণ্টার মধ্যে ইউলিয়া যদি ওই ব্যক্তিকে ফোন না করেন, তাহলে ওই ব্যক্তি চাইলে পুলিশের কাছে অভিযোগ করতে পারেন।

 

 

 

 

 

কুমারিত্ব বিক্রির বিজ্ঞাপন প্রকাশ করা ‘তরবিনকা’ সংবাদপত্র বলেছে, এই ধরনের বিজ্ঞাপন তারা প্রথমবারের মতো প্রকাশ করল। একটি ভালো কাজের জন্য জরুরি অর্থের প্রয়োজনে নিজের কুমারিত্ব বিক্রির ঘোষণা দিলেও ভালো কাজটি যে কী, তা জানাননি ইউলিয়া।

 

 

 

 

 

এর আগে ঘোষণা দিয়ে নিজের কুমারিত্ব বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন রোমানিয়ার ১৮ বছর বয়সী মডেল আলেজান্দ্রা খেফরেন। ঋণগ্রস্ত মা-বাবার বন্ধকি বাড়ি বাঁচাতে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার খরচ জোগাতে গত বছরের শেষের দিকে নিজের কুমারিত্ব বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

 

 

 

 

সিনড্রেলা এসকর্টের মাধ্যমে নিজের কুমারিত্ব নিলামে তুলেছিলেন তিনি। সেখানে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হংকংয়ের এক ব্যবসায়ী সর্বোচ্চ দর ২০ লাখ ডলার (প্রায় ১৬ কোটি ১২ লাখ টাকা) হেঁকে আলেজান্দ্রা খেফরেনের কুমারিত্ব কিনে নেন।

 

 

 

 

 

 

চলতি বছরের মে মাসে পড়াশোনার খরচ চালানোর পাশাপাশি একটি ফ্ল্যাট ও গাড়ি কেনার জন্য কুমারীত্ব বিক্রির ঘোষণা দিয়েছিলেন জার্মানির ১৮ বছর বয়সী এক তরুণী। কিম নামের ওই তরুণী জার্মানির সিনড্রেলা এসকর্ট নামের একটি অনলাইন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে নিজের কুমারীত্ব নিলামে তোলার ঘোষণা দেন।