প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:      এবার আয়ারল্যান্ডের বাসিন্দা এক নারী বিয়ে করলেন ৩০০ বছর বয়সী ভূতকে! তার নাম আমান্ডা টিগ। তার দাবি, তিনি একজন ৩০০ বছরের পুরারনো ভূতকে বিয়ে করেছেন।

 

 

 

 

 

২০১৬ সালের জুলাই মাসে দাবি করেন তিনি আইনতভাবে বিয়ে করেছেন ভূত জ্যাক টিগকে। যিনি ১৭০০ সালে মারা গিয়েছিলেন।

 

 

 

 

 

তবে সবচেয়ে বিস্ময়কর বিষয় হল, জ্যাক নাকি দারুণ যৌন আনন্দ দিতে পারে, আমান্ডা এর আগে কখনও এই অনুভূতি কোনও মানুষের থেকে পাননি।

 

 

 

 

 

 

এখন ভূতের প্রেমে পাগল আমান্ডা। শুরুটা হয়েছিল পর্দার জ্যাক স্প্যারো ওরফে জনি ডেপকে দেখে। জলদস্যুদের জীবনের প্রেমে পড়ে গিয়েছিলেন আমান্ডা। এমনকী নিজের গায়ে স্প্যারোর মতো ট্যাটুও করিয়েছিলেন তিনি। ঘটনাচক্রে যে জলদস্যুর ভূতের সঙ্গে তিনি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন তার নামও জ্যাক।

 

 

 

 

 

৪ সন্তানের মা আয়ারল্যান্ডে নিজের শোবার ঘরে একদিন শুয়ে ছিলেন। সেই রাতে তার ঘরে প্রবেশ করেন ৩০০ বছরের পুরনো জলদস্যু জ্যাকের অশরীরি। প্রায় ৬ মাস তাদের দু’জনের মধ্যে নাকি শারীরিক সম্পর্কও হয়।

 

 

 

 

 

 

 

এরপরই তারা বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন। আর দশটা স্বাভাবিক বৈবাহিক সম্পর্কের মতই আমান্ডা ও জ্যাক ঝগড়া করেন, সপ্তাহান্তে রোম্যান্টিক ড্রাইভে যান, এমনকী একে-অপরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ মুহূর্তও কাটান বলেও দাবি করা হয়।