প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:      ‘স্যার মহাখালী বিকাশ অফিস থেকে বলছি। আপনার বিকাশ নম্বরটি গতরাতে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আপনি যদি একাউন্টটি চালু করতে চান তবে কিছু নির্দেশনা মানতে হবে।

 

 

 

 

আমার কথাগুলো মনযোগ দিয়ে শুনুন প্লিজ’। কথাগুলো সোমবার সকাল ৯টা ২১ মিনিটে ০১৮৬১১৪৬১০২ নম্বর থেকে আসা একটি মুঠোফোনের।

 

 

 

 

এরপর বলা হয়, আপনার একাউন্টটি চালু রাখবেন না বন্ধ করে দেবেন। চালু রাখতে হলে আপনার ভোটার আইডি নম্বরসহ কিছু ইনফরমেশন দিন। এপাশ থেকে ফোন রিসিভ করা ভদ্রলোক উল্টো বিকাশ অফিসের লোককে নানা প্রশ্ন করতে থাকলে লাইনটি কেটে যায়।

 

 

 

 

এরপর ১১টা ২ মিনিটে ০১৮৫৪৯৮৯০৭৩ নম্বর থেকে আবারও ফোন আসে। একইভাবে বিকাশ মহাখালী অফিসের পরিচয় দিয়ে ফোন আসে। এবার ভিন্ন কন্ঠ। তবে কিছুটা আঞ্চলিক টান (বরিশালের) রয়েছে ওই কন্ঠে।

 

 

 

 

ফোন রিসিভ করা ভদ্রলোক এবার বিরক্ত হয়ে বললেন, আমার একাউন্টটি বন্ধ করে দেন। আপনাদের মত চিটারদের কারণে একাউন্ট চালাতে চাই না। এরপরে ফোন লাইন কেটে দেয়া হয়।

 

 

 

 

 

ঈদের ছুটিতে ব্যাংক বন্ধ থাকায় অনেকেই বিকাশ একাউন্টে টাকা লেনদেন করে থাকেন। আর এ সুযোগে একটি প্রতারক চক্র বিকাশ, অফিসের পরিচয় দিয়ে সাধারন গ্রাহকদের সঙ্গে নানা কথাবার্তা বলে এক পর্যায়ে টাকা হাতিয়ে নেয়।

 

 

 

 

 

 

সহজ সরল অনেকেই কাস্টমার কেয়ারের পরিচয় দেয়া এবং শুদ্ধভাবে কথা বলায় ফোন না কেটে বিভিন্ন নির্দেশনা ফলো করেন। পরে একাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেয়ার পর বোঝেন তার কি পরিমান ক্ষতি হয়েছে। তখন কাউকে কিছু বলতেও পারেননা অনেকে।