প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:       আর মাত্র একদিন পরেই দেশব্যাপী উদযাপিত হবে ঈদুল আজহা। ঈদের নামাজের পর সারাদিন কোরবানির পশু জবাইয়ের পর কাটাকাটিতে ব্যস্ত থাকেন অনেকে। তবে এ ক’দিন প্রচন্ড গরম পরলেও ঈদের দিনে আবহাওয়া কেমন হবে তা নিয়ে চিন্তিত অনেকে।

 

 

 

 

 

আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপও সৃষ্টি হতে পারে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় বিরাজ করছে। এটির উপর নির্ভর করছে ঈদের দিনসহ আগামী কয়েকদিন বৃষ্টি হওয়া না হওয়া। তবে ঈদের দিন পশলা বৃষ্টির আশঙ্কা করা হচ্ছে। সেদিন রোদ এবং তাপমাত্রাও বেড়ে যাবে খানিকটা।

 

 

 

 

 

ইতোমধ্যে অনেক এলাকায় বৃষ্টি হচ্ছে। এই প্রবণতা থাকলে বুধবার ঈদের দিন বৃষ্টি বাড়তে পারে। সেক্ষেত্রে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে, বিশেষ করে খুলনা, বরিশাল, সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হতে পারে। এই সময়ে কোথাও কোথাও ভারী বর্ষণের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছে না আবহাওয়া অধিদপ্তর।

 

 

 

 

 

সোমবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল সিলেটে ৩৫ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় কিশোরগঞ্জের নিকলিতে দেশের সর্বোচ্চ ৮০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

 

 

 

 

 

মঙ্গলবারের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে- খুলনা, বরিশাল, ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, ময়মনসিংহ ও রংপুর বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে। পরের ৪৮ ঘণ্টায় বৃষ্টির প্রবণতা বাড়তে পারে।