প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:     রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সময় বাংলাদেশের ওপর নির্ভর করছে বলে মন্তব্য করেছেন মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি। চার দিনের সফরে সিঙ্গাপুরে গিয়ে আজ মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন তিনি।

 

 

 

 

দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি বলেন, জাতিগত মুসলিম রোহিঙ্গাদের রাখাইন রাজ্যে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার সময়সীমা নির্ধারণ করা কঠিন। কারণ তারা যেখানে পালিয়ে গেছে, সেই বাংলাদেশের সহযোগিতা প্রয়োজন।

 

 

 

 

আইএসএএস ইউসফ ইশক ইনস্টিটিউট আয়োজিত ‘মিয়ানমারের ডেমোক্রেটিক ট্রানজিশন: চ্যালেঞ্জেস অ্যান্ড ওয়ে ফরোয়ার্ড’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সিঙ্গাপুরে গেছেন অং সান সু চি।

 

 

 

 

সংবাদ সংস্থা ইউএনবি জানিয়েছে, অনুষ্ঠানে সু চি বক্তৃতায় রোহিঙ্গা সংকট ও গত দুই বছরের গণতন্ত্রের উন্নয়নসহ ক্ষমতা ও প্রয়োগ বিষয়ে তাঁর পর্যালোচনা তুলে ধরেন।

 

 

 

 

অং সান সু চি বলেন, মিয়ানমার বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করছে এবং ইতিমধ্যে রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন ও পুনর্বাসনের জন্য সাধারণ এলাকাগুলো চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের সরিয়ে নেওয়া বাংলাদেশের ওপর নির্ভর করছে।

 

 

 

 

 

 

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট থেকে বাংলাদেশে রোহিঙ্গার ঢল নামেন। রাখাইন রাজ্যে সহিংসতার কথা বলে সে দেশের সেনাবাহিনী ধরপাকড় চালায়।

 

 

 

 

 

 

 

সেখানে নির্যাতন, বাড়িঘরে আগুন ও গণধর্ষণ চালালে রোহিঙ্গারা পালিয়ে বাংলাদেশে আসতে শুরু করে। ১০ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে ঠাঁই নিয়েছে।