প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:      রোমা থেকে লিভারপুলে পাড়ি দেওয়ার পর প্রথম মৌসুমেই এনফিল্ডের দর্শকদের ভালবাসায় সিক্ত হয়েছেন মোহামেদ সালাহ। ‘অলরেড’দের হয়ে খেলে বহু পুরস্কারও বগলদাবা করেছেন। এবার ফুটবলের বাইরে ভিন্ন এক কারণে পুরস্কার পেতে চলেছেন এই মিশরীয় ‘রাজা’।

 

 

 

 

যুক্তরাজ্যের সর্বোচ্চ প্রোফাইলধারী মুসলিম এখন ২৬ বছর বয়সী মোহামেদ সালাহ। সারা বিশ্বে নিজের অগণিত ভক্তদের মাঝে তিনি ইসলামের আলো এবং মুসলিম ঐতিহ্য প্রচারে বড় ভূমিকা রেখে চলেছেন।

 

 

 

 

 

আর অনুপ্রেরণীয় পাবলিক ফিগার হিসেবে এবার তাকে পুরস্কৃত করতে চলেছে হংকংভিত্তিক ব্যাংক এইচএসবিসি। এই ব্যাংক কর্তৃক প্রদেয় বার্ষিক ‘ইথনিসিটি অ্যাওয়ার্ড’ মূলত কৃষ্ণাঙ্গ ও সংখ্যালঘু জাতিসত্ত্বা থেকে ওঠে আসা ব্যক্তিদের মধ্যে যারা মানুষের দৃষ্টিতে বিশেষ অবদান রাখেন তাদের প্রদান করা হয়।

 

 

 

 

চলতি বছরের শুরুর দিকে এনফিল্ডের গ্যালারিতে দর্শকদের বিখ্যাত ইংলিশ গায়ক ডজি’র ‘গুড এনাফ’ গানের অনুকরণে এমন এক গান গাওয়া হয় যা তাদের ইসলাম ধর্মের প্রতি আকৃষ্ট হওয়ার স্পষ্ট ইঙ্গিত দেয়।

 

 

 

 

 

 

পুরস্কার প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘মোহামেদ সালাহ ব্রিটেনে মুসলিম ঐতিহ্যের আলো জ্বালাতে এবং এই ধর্ম সম্পর্কে ইতিবাচক ধারণা তৈরিতে ভূমিকা রেখেছেন।’

 

 

 

 

 

‘তিনি অগণিত ফুটবলভক্তের মন জয় করেছেন এবং সকল ধর্মবিশ্বাসীদের এক ছাতার নিচে আনতে সক্ষম হয়েছেন।’

 

 

 

 

 

লিভারপুলের শেখ আবদুল্লাহ কুইলিয়াম মসজিদের প্রধান কর্মকর্তা মুমিন খান বলেছেন, ‘তিনি (সালাহ) যুক্তরাজ্য এবং সারা বিশ্বের মুসলিম ও অমুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য একজন ইতিবাচক রোল মডেল।’

 

 

 

 

 

‘তিনি ইসলাম ধর্মবিশ্বাস নিয়ে সৃষ্ট নেতিবাচক ধারণা পরিবর্তন করতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি এমন একজন রোল মডেল যাকে আমরা পুরো ব্রিটেনজুড়ে খুঁজেছি। তার মতো মানুষ সবাইকে একত্র করতে সক্ষম।’

 

 

 

 

 

 

জাতিগত সংখ্যালঘুদের নিয়ে ইতিবাচক কাজ করা বিভিন্ন সেলিব্রেটি আর বড় ব্র্যান্ডকে আগামী ১ নভেম্বর লন্ডনের ওয়ালডোরফ হিল্টনে বিশাল চিত্তাকর্ষক অনুষ্ঠানে সম্মানিত করা হবে।

 

 

 

 

 

 

সালাহ ছাড়াও পুরস্কারের জন্য মনোনিত বাকিরা হলেন- ‘টুয়েলভ ইয়ার্স আ স্লেভ’খ্যাত চিবতেল ইজিওফর, ‘স্ট্রিক্টলি কাম ডেন্সিং’খ্যাত ওরে উডুবা এবং উপস্থাপিকা আলেসা ডিক্সন।