প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:      রাজধানীসহ সারা দেশেই চলছে মামলার ছড়াছড়ি, গ্রেপ্তার ও আসামি করার হিড়িক। এমনকি যেসব বিএনপি নেতা দেশে নেই বা অনেকে হজ পালন করতে মক্কায় অবস্থান করছেন, তাদের নামেও মামলা দেয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। আজ বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

 

 

 

 

 

রিজভী বলেন, সরকার অজানা আশঙ্কায় বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তার করে কারাগার ভরে ফেলেছে। সারা দেশে কোনো ঘটনা না ঘটলেও বিভিন্ন থানায় অগ্রিম মামলা করে রেখেছে পুলিশ।

 

 

 

 

 

এসব মামলায় হাজার হাজার অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করে রাখা হয়েছে। এতে সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয় সরকারবিরোধী দলের বিরুদ্ধে বিনাকারণে দমননীতির অংশ হিসেবে মামলা দায়ের ও সে মামলায় গ্রেপ্তার করে।

 

 

 

 

শেখ হাসিনা মনে করেন, তার বিরুদ্ধে যাতে কোনো দিক থেকে কোনোভাবেই কেউ যেন টুঁ শব্দ না করতে পারে, সে জন্যই পুলিশ গ্রেফতার ও মিথ্যা মামলায় সয়লাব করে দিয়েছে সারা দেশকে।

 

 

 

 

 

বর্তমান অবৈধ সরকার বিদ্বেষ ও উগ্রতা দিয়ে মামলা-হামলা গ্রেপ্তারের মাধ্যমে বিরোধী দলের ওপর দমন-পীড়ন চালিয়ে ভোটারবিহীন বেআইনিভাবে ক্ষমতায় চিরকালীন থাকাটা নিশ্চিত করতে চাচ্ছে।

 

 

 

 

 

 

রিজভী আরও বলেন, ক্ষমতাসীন নেতা ও মন্ত্রীদের হুমকি-ধমকি দেখে মনে হয়- অন্ধকারে ভয়ে যেমন মানুষ চিৎকার করে, তেমনি সরকার পতনের ভয়ে আর্তচিৎকার করছে।

 

 

 

 

 

 

এ সময়ে অন্যদের মধ্যে ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্স, কেন্দ্রীয় নেতা এবিএম মোশররফ হোসেন, মুনির হোসেন আব্দুল সালাম আজাদ, আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।