প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:      লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলায় ব্যবসায়ী স্বামীর স্বর্ণালঙ্কারসহ ১০ লাখ টাকা নিয়ে প্রেমিকের (ননদের স্বামী) সঙ্গে তিন সন্তানের জননী জায়েদা আক্তার রেখা নামে এক গৃহবধূ উধাও হয়েছেন। এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় চলছে।

 

 

 

 

 

গত মঙ্গলবার এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী রায়পুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। সোমবার রাতে সোনাপুর ইউনিয়নের চরবগা গ্রামের মৈশাল বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

 

 

 

 

পলাতক গৃহবধূ জায়েদা আক্তার রেখা (৩১) সদর উপজেলার রসুলগঞ্জ গ্রামের আবুল কালামের বড় মেয়ে ও রায়পুর উপজেলার চরবগা গ্রামের ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন জহিরের স্ত্রী এবং প্রেমিক দেলোয়ার মাহমুদ জয় একই গ্রামের আবদুল আলী মাস্টারের ছেলে।

 

 

 

 

 

ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন জহির জানান, প্রথম স্ত্রী মারা যাওয়ায় প্রায় ৮ বছর আগে জায়েদা আক্তার রেখাকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন তিনি। তাদের সংসারে ১৮, ১৪ ও ৫ বছরের তিন ছেলে রয়েছে।

 

 

 

 

সোমবার রাতে ঢাকায় যাওয়ার নাম করে প্রেমিক দেলোয়ার ও বাবার বাড়ির নাম করে প্রেমিকা রেখা বাড়ি থেকে পালিয়ে যান। যাওয়ার সময় রেখা আলমারিতে রাখা দুই ভরি স্বর্ণসহ গরু বিক্রির ১০ লাখ টাকা নিয়ে যান। এ অবস্থায় নিরুপায় হয়ে থানায় জিডি করেছি আমি।

 

 

 

 

সোনাপুর ইউপির সদস্য নূরনবী বলেন, জায়েদা আক্তার রেখা তার তিনটি বাচ্চা রেখে পরকীয়া প্রেমিকের (ননদের স্বামী) সঙ্গে উধাও হওয়ার ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। সবাইকে নিয়ে এর কঠিন বিচার করা হবে।

 

 

 

 

 

রায়পুর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক গোলাম মোস্তফা বলেন, পরকীয়া প্রেমিকের (ননদের স্বামী) সঙ্গে উধাও হওয়ার ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন জহির থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। উভয়ের খোঁজ পেতে দেশের সকল থানায় বার্তা পাঠানোসহ গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। আসা করছি তাদের দ্রুত গ্রেফতার করতে পারব।