প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:     মাত্র ১৯ বছরের সুন্দরী তরুণী। নাম ইডেন ডি’সিলভা ওরফে রামিসা সিমরান। অনেকে তাকে ইয়াবা সুন্দরী নামেও ডেকে থাকেন। ভার্চুয়াল জগতে তার ইয়াবা সেবনের ছবিও রয়েছে।

 

 

 

 

গত শুক্রবার ভোরে গুলশান থানা পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে ১৯ বছর বয়সী এই তরুণী। এরপর এক এক করে বেরিয়ে আসছে তার নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ডের কেচ্ছা-কাহিনী।

 

 

 

 

 

পুলিশ সূত্রে, সুন্দরী এই তরুণী পোশাক-আশাকে সব সময় পরিপাটি থেকে ধনাঢ্য পরিবারের সন্তানদের টার্গেট করতেন। এরপর তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে সুযোগ-সুবিধা আদায়ের পাশাপাশি সুযোগ পেলে ব্ল্যাকমেইলও করতেন।

 

 

 

 

মূলত মাদকের সঙ্গে তার সরাসরি সংশ্লিষ্টতা থাকলেও গত শুক্রবার ভোরে সুন্দরী এই তরুণীকে একটি চুরির মামলায় আটক করা হয়। যে মামলায় ইডেন ডি’সিলভার বিরুদ্ধে এক ধনাঢ্য পরিবারের সন্তানকে প্রেমের জালে ফেলে ফাঁসিয়ে ৩৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়া অভিযোগ করা হয়েছে।

 

 

 

 

পুলিশের কাছে অভিযোগ রয়েছে, এই ইয়াবা সুন্দরী প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে অনেক ব্যক্তির কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। পুরান ঢাকার এক সংসদ সদস্যের ছেলে তার ফাঁদে পড়ে অনেক কিছু হারিয়েছেন এবং মাদকের খপ্পড়ে পড়েছেন।

 

 

 

 

জানা গেছে, রাজধানীর গুলশান, বনানী ও মিরপুরসহ একাধিক থানায় তার নামে মামলা ও জিডি রয়েছে। তবে এতোদিন তিনি ধরা-ছোঁয়ার বাইরে ছিলেন। অবশেষে শুক্রবার ভোরে গুলশান ১৭ নম্বর সড়ক থেকে পুলিশ আটক করতে সক্ষম হয়। এরপর পুলিশ তাকে আদালতে তুলে রিমান্ডের আবেদন করলে তা নাকচ করে বিচারক কারাগারে পাঠানোর নিদের্শ দেন।

 

 

 

 

 

 

গুলশান থানা পুলিশ সূত্রে আরো জানা গেছে, রাজধানীর বিভিন্ন থানায় ইডেন ডি’সিলভার বিরুদ্ধে যেসব মামলা রয়েছে সেগুলোর নথি সংগ্রহ করা হচ্ছে। একই সঙ্গে তাকে আবারো কোর্টে তুলে রিমান্ডের আবেদন জানানো হবে।