প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:      নির্বাচনকালীন সরকারে মন্ত্রী হিসেবে থাকবেন বলে দাবি করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ। তিনি বলেন, নির্বাচনকালীন অন্তর্বর্তী সরকারে মন্ত্রী হতে আমার কোনো বাধা নেই।

 

 

 

তবে রওশন এরশাদের বাধা আছে। কারণ তিনি নির্বাচনের শেষ পর্যন্ত বিরোধীদলীয় নেত্রী হিসেবে থাকবেন। সে কারণে আমি অবশ্যই মন্ত্রী থাকবো। বৃহস্পতিবার দুপুরে তিন দিনের ব্যক্তিগত সফরে ঢাকা থেকে রংপুরে এসে সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এই কথা বলেন।

 

 

 

 

এরশাদ বলেন, বিএনপি নির্বাচনে আসলে জাতীয় পার্টির জোট থাকবে আওয়ামী লীগের সঙ্গে। দিন পরিবর্তন হয়েছে। মহাজোটের সাথে থাকলে জাতীয় পার্টির জয় হবে। গত নির্বাচন করি নাই এবার রংপুরের ২২ টি আসন ফেরত চাইবো। এই নির্বাচনে জাতীয় পার্টির জন্য ৭০ টি আসন চেয়েছি।

 

 

 

 

 

গণফোরাম নেতা ড. কামালের নেতৃত্বে জোট নিয়ে এরশাদ বলেন, যে কেউ জোট করতে পারেন। বিএনপি সে জোটে যোগ দেয়নি, যোগ দেবে বলে শুনছি। তবে তাদের জোট কতখানি শক্তিশালী হবে জানি না। বিএনপি ওই জোটে গেলে আমরা আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোটে থেকে নির্বাচন করবো।

 

 

 

 

খালেদা জিয়ার চিকিৎসা সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া অসুস্থ কিনা জানি না। সরকার ইচ্ছে করলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করাতে পারে। এ ব্যাপারে আমার কিছু বলার নেই।

 

 

 

 

বিএনপি নির্বাচনে আসলে বা না আসলে আমাদের কিছুই যায় আসে না। দলের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব এখন তারেক রহমান পালন করছে, ফলে তাদের সিদ্ধান্ত তারাই নেবে। তবে তারা যতই ঐক্য করুক কোনো লাভ হবে না। কারণ, দেশের জনগণ তাদের বিশ্বাস করে না।

 

 

 

 

 

এর আগে এরশাদ সার্কিট হাউজে এসে পৌঁছালে দলের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান। পুলিশের একটি দল তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করে।

 

 

 

 

 

এ সময় জাপার কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, রংপুর মহানগর জাপা সভাপতি সিটি মেয়র মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসিরসহ দলের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন