প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:    নির্দলীয় সরকার প্রশ্নে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অনমনীয় অবস্থানের মধ্যে বিএনপিকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন চাইলেও তাদের জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গ ছাড়ার শর্ত দিয়েছে বিকল্প ধারা।

 

 

 

 

মঙ্গলবার রাতে ঢাকার বারিধারায় বিকল্প ধারা সভাপতি এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বাড়িতে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার এক বৈঠকে বিএনপির প্রতিনিধিকে এই শর্ত জানিয়ে দেওয়া হয়।

 

 

 

 

এই বৈঠকে ‘পর্যবেক্ষক’ হিসেবে ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। তার সঙ্গে ছিলেন বিএনপি সমর্থক পেশাজীবী নেতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী। মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপির শীর্ষ নেতাদের কেউ ছিলেন না এই বৈঠকে।

 

 

 

 

বিকল্প ধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহি বি চৌধুরী বৈঠকের পর সাংবাদিকদের বলেন, “স্বাধীনতাবিরোধী দল বা ব্যক্তির সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কোনো ঐক্য হতে পারে না। বিএনপির সঙ্গে আমরা জাতীয় ঐক্য চাই, তবে এই ঐক্যে আসতে হলে বিএনপিকে অবশ্যই জামায়াতকে ছেড়ে আসতে হবে।”

 

 

 

 

বিকল্প ধারার জামায়াত ছাড়ার প্রস্তাব নিয়ে বৈঠকে অংশ নেওয়া টুকু কিংবা বিএনপির অন্য কোনো নেতার সুনির্দিষ্ট বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

 

 

 

 

বৈঠকের পর বি চৌধুরী সাংবাদিকদের জানান, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের বিষয়ে বিএনপি ২৯ সেপ্টেম্বর তাদের জনসভায় বার্তা দেবে।

 

 

 

 

তিনি বলেন, “আমাদের জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার মধ্যে আমরা বিএনপির অনেক কাছাকাছি এসেছি। আজকের বৈঠকে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের প্রতিনিধি ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু পর্যবেক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

 

 

 

 

 

“আমরা দ্রুত একটা লিয়াজোঁ কমিটি করব। এ ব্যাপারে আজকের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিএনপির প্রস্তাব অনুসারে আমরা ২৯ তারিখের পরে এই লিয়াজোঁ কমিটি করব। কারণ তারা ২৯ সেপ্টেম্বর জনসভার মাধ্যমে আমাদের সাথে ভবিষ্যৎ প্রক্রিয়া কী হবে এবং তাদের নীতি সম্পর্কে বিবৃতি দেবেন।”

 

 

 


দলের কী বার্তা নিয়ে এসেছিলেন- সাংবাদিকরা জানতে চাইলে টুকু বলেন, “স্যার (বি চৌধুরী) বলে দিয়েছেন, আমি কী নিয়ে এসেছি। আমার বলার কিছু থাকে না। আমাদের ২৯ তারিখে যে জনসভা আছে, সেই সভা থেকে আমরা আমাদের পরিকল্পনা জনগণের কাছে দেব।”

 

 

 

 

 

ঐক্য প্রক্রিয়া সফলতার দিকে এগিয়ে নেওয়ার ইচ্ছার কথা বলেন তিনি।