প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:       পরিবর্তিত সময়ের সঙ্গে বদলাচ্ছে স্মার্টফোনের ফিচারগুলোও। আরও আধুনিক হচ্ছে ডিভাইস। আগে স্মার্টফোনের সঙ্গে দেওয়া হত হেডফোন জ্যাক। তবে, ব্যাপারটি এখন ব্যাকডেটেড। এমনই অনেক পরিবর্তন ইতিমধ্যেই এসেছে বা আসতে চলেছে। কিছুদিনের মধ্যেই পুরোপুরিভাবে বদলে যাবে স্মার্টফোনের সংজ্ঞা। ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারকে রিপ্লেস করেছে ফেস আনলকের ফিচারটি। রইলো সেইরকমই কিছু আপডেট।

 

 

 

 

১) খুব শীঘ্রই স্মার্টফোনের আপকামিং মডেলগুলি থেকে গায়েব হতে চলেছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারের ফিচারটি। অ্যাপেলের লঞ্চ করা তিনটি নয়া সেটে (-XS, XS Max, XR) ফিঙ্গারপ্রিন্টের বদলে দেখা গিয়েছে ফেস আইডি ( Face ID)। Vivo,Oppo-র মতো সংস্থাগুলি এনেছে ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার।

 

 

 

 

২) স্মার্টফোনের সঙ্গে হেডফোন ( 3.5mm) দেওয়ার রীতি এখন অতীত। বড় বড় স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক সংস্থা এই নতুন পন্থাকে অনুসরণ করছে।

 

 

 

 

৩) ইতিমধ্যেই অ্যাপেল এনেছে ই-সিমের সিস্টেম। তবে, খুব শীঘ্রই অ্যাণ্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্রাণ্ডগুলি ফিজিক্যাল সিমের আইডিয়াকে ড্রপ করতে চলেছে। বর্তমানে ভারতে ই-সিমের পরিষেবা দিচ্ছে রিলায়েন্স জিও ও এয়ারটেল। তবে, বাকি টেলিকম সংস্থাগুলিও নিয়ে আসতে চলেছে পরিষেবাটিকে।

 

 

 

 

 

৪) মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট হতে পারে গায়েব। এক্সটার্নাল মাইক্রোএসডি কার্ড ফোনের পারফর্মেন্সের উপর প্রভাব ফেলে। তাই, স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলি ইন্টারনাল স্টোরেজের উপর জোর দিচ্ছে। সে কারণেই ভবিষ্যতে স্মার্টফোন থেকে সরানো হতে পারে মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট।

 

 

 

 

 

৫) ট্রাডিশানাল মোবাইল চার্জার সরিয়ে বাজারে আসছে ওয়ারলেস চার্জিংয়ের ট্রেণ্ড। একইভাবে স্মার্টফোনের ডিসপ্লেকে ব্যবহার করা হতে পারে স্পিকার হিসেবে। উদারহণ হিসেবে বলা যায়, Vivo Nex এর কথা। যেখানে ডিসপ্লেতেই থাকছে স্পিকারের ফিচারটি।

 

 

 

 

 

৬) খুব তাড়াতাড়ি বাজারে আসছে আরও একটি ট্রেণ্ড, ফোল্ডেবেল স্মার্টফোন। ইতিমধ্যেই Samsung, LG, Xiaomi-র মতো নামীদামি ব্র্যাণ্ডগুলি কাজ শুরু করে দিয়েছে। পুরোনো মডেলের ফোনগুলিকে গুডবাই বলার সময় আসছে।