প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:      ভারতের গুজরাট রাজ্যে একটি ধর্ষণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে জাতিগত সংঘাত শুরু হয়েছে। এর জেরে পালিয়ে যাচ্ছে অনেক হিন্দিভাষী লোক। এদিকে বিজেপি-শাসিত রাজ্যটির পুলিশ বলছে, সংঘাত রুখতে কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে তারা।

 

 

 

 

ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, জাতিগত সংঘাত এখনও বিরাজমান রয়েছে। সে কারণে প্রতিদিন অসংখ্য হিন্দিভাষী শ্রমিক শ্রেণির মানুষ গুজরাট ছেড়ে নিরাপদস্থানে চলে যাচ্ছে।

 

 

 

 

 

উল্লেখ্য, গুজরাটে কয়েক লাখ শ্রমিক বাস করে। বিহার, উত্তরপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরা এবং ঝাড়খন্ডসহ ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে এদের স্থায়ী আবাস।

 

 

 

 

 

 

ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, সম্প্রতি এ গুজরাটে কাজের জন্যে আসা বিহারের এক বাসিন্দার বিরুদ্ধে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠে। এরপর থেকেই সেখানে গুজরাটি ভাষা ছাড়া অন্য ভাষাভাষী শ্রমিকদের ওপর অত্যাচার শুরু হয়।

 

 

 

 

 

সে কারণে জীবন বাঁচাতে গত কয়েকদিন গুজরাট ছেড়ে পালিয়েছে বিহার-উত্তরপ্রদেশের হিন্দিভাষী হাজার হাজার শ্রমিক এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা।

 

 

 

 

 

জি নিউজের এক খবরে বলা হয়েছে, এখন পর্যন্ত ৫০ হাজার শ্রমিক গুজরাট থেকে তাদের নিজেদের রাজ্যে চলে গেছে।

 

 

 

 

 

পশ্চিমবাংলার আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে জানা যায়, সংঘাতের ঘটনায় অন্তত ৩৪২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে গুজরাটের পুলিশ। মামলা হয়েছে ৪২টি।