প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট : বাঘের হামলায় আহত মৎসজীবী। দক্ষিণ ২৪ পরগনার পাথরপ্রতিমার ঘটনা। গুরুতর আহত অবস্থায় বৃসস্পতিবার রাতেই ওই মৎসজীবীকে ভর্তি করা হয় হাসপতালে। কিন্তু, হাসপাতালে ভর্তির পরও অবস্থার উন্নতি হয়নি গৌতম মল্লিক নামে ওই মৎসজীবীর শারীরিক অবস্থার। ফলে, মাঝ রাতেই তাঁকে কলকাতার পিজি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

ঘটনা হল, বৃহস্পতিবার পাথরপ্রতিমার বিজয়য়াডা জঙ্গলে কাঁকড়া ধরতে যান ৩ জন মৎসজীবী। তাঁদের সঙ্গে ছিলেন গৌতম মল্লিক নামে ওই ব্যক্তি। নদীর চরে নেমে কাঁকড়া ধরতে শুরু করলে, আচমকাই মৎসজীবীদের পিছন থেকে হামলা চালায় একটি বাঘ। বাঘের হানায় দিশেহারা হয়ে যান ওই ৩ জন।

কোনওক্রমে লাঠি দিয়ে পাল্টা আক্রমণ করে, সেখান থেকে বাঘকে হঠিয়ে দেন গৌতমের অন্য দুই সঙ্গী। কিন্তু, টানা ১০ মিনিট বাঘের সঙ্গে লড়াই চালিয়ে তবেই গৌতমকে উদ্ধার করা হয়। ঘাড়ে, গলায়, বুকে গুরুতর আঘাত নিয়ে গৌতম মল্লিক নামে ওই মৎসজীবীকে তড়িঘড়ি পাথর প্রতিমা মাধবনগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু, অবস্থার অবনতি হতে করায় রাতেই গৌতম মল্লিককে পিজি-তে স্থানান্তরিত করা হয়।