প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :  অযত্ন-অবহেলায় অনেক সময় দাঁত ভঙ্গুর হয়ে যেতে পারে। সামান্য কারনে এসব দাঁত ভেঙ্গে যেতে পারে। এছাড়া আঘাতের কারনেও দাঁত ভেঙ্গে যেতে পারে। আমাদের দেশে আঘাতজনিত দাঁত পড়ার কয়েকটি প্রচলিত কারন হচ্ছে- টিউবওয়েলের হাতল থেকে হাত পিছলে পড়ে যাওয়া, দৌড়াতে গিয়ে পড়ে যাওয়া, ব্যাট বা বলের আঘাত কিংবা সড়ক দুর্ঘটনা। তবে দাঁত পড়ে বিচলিত হওয়া যাবে না। সঠিক নিয়মে দাঁতটি সংরক্ষণ ও দ্রুত চিকিৎসকের কাছে গেলে আপনি সেই দাঁতই আগের স্থানে বসাতে পারবেন। এজন্য হঠাৎ দাঁত পড়ে গেলে যা করতে হবে-

১. পড়ে যাওয়া দাঁতটি খুঁজে বের করতে হবে।

২. খুঁজে পাবার পর দাঁতের শিকড়ের গায়ে হাত দেয়া যাবে না।

৩. দাঁতের উপরের সাদা অংশকে ক্রাউন বলে। এই অংশটা ধরতে হবে।

৪. দাঁতটিতে ময়লা লেগে গেলে তা ধোয়ার জন্য একটি বাটিতে নরমাল স্যালাইন অথবা দুধ নিতে হবে। এরপর তার মধ্যে দাঁতটি রেখে পরিস্কার করার চেষ্টা করতে হবে।

৫. কোনো কিছু দিয়ে দাঁতের গায়ে লেগে থাকা ময়লা মোছা যাবে না।

৬. সাধারণ পানি দিয়েও পড়ে যাওয়া দাঁত ধোয়া যাবে না।

৭. পরিষ্কার করার পর দাঁতের ক্রাউন অংশটি ধরে মুখের মধ্যে চোয়ালের জায়গামত বসিয়ে দিতে হবে। অর্থাৎপূর্বে যেখানে ছিল সেখানে। এরপর কামড় দিয়ে আলতো চাপে তা ধরে রাখতে হবে।

৮. এই কাজটি নিজে না করতে পারলে কিংবা জটিলতা অনুভব করলে খুব দ্রুত দন্ত চিতিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। এ সময় দাঁতটিকে রোগীর মুখের লালা, নরমাল স্যালাইন বা দুধের মধ্যে রেখে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যেতে হবে।

৯. মনে রাখতে হবে, পড়ে যাওয়া দাঁত যত বেশি সময় ধরে মুখের বাহিরে থাকবে ততই তার ঠিক থাকার সম্ভাবনা কমতে থাকবে। তাই দ্রুত চিকিৎসকের কাছে দাঁতটি নিয়ে যান।
১০. সাধারণত এক ঘন্টার মধ্যেই যদি চিকিৎসকের সহায়তায় দাঁতটিকে তার পূর্বের যায়গায় বসিয়ে দেয়া যায় তবে তা ঠিক হয়ে যায়।