প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :   বিএনপি সন্ত্রাসী বিশৃঙ্খলাকারীদের ঢাকায় অনুপ্রবেশ করাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং দলের অন্যতম মুখপাত্র ড. হাছান মাহমুদ।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত ‘বিএনপির সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের প্রতিবাদে’ বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম জিয়ার জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে বিএনপির নেতাকর্মীরা ঢাকা শহরে নাশকতা সৃষ্টির অপচেষ্টা করবে। তারা দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি এবং ঢাকা শহরে নাশকতা চালাবে। এজন্য সারাদেশ থেকে বিএনপি জামায়াত সন্ত্রাসী বিশৃঙ্খলাকারীদের ঢাকা শহরে ঢুকাচ্ছে। আওয়ামী লীগের সমস্ত পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সর্তক দৃষ্টি রাখতে হবে এবং দুষ্কৃতকারীদের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ধরিয়ে দিতে হবে।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, খালেদা জিয়ার গাড়ি বহর অাদলত থেকে ফেরার পথে ফিল্ম স্টাইলে পুলিশের ওপর আক্রমণ এবং অস্ত্র কেড়ে নিয়ে ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে, প্রিজম ভ্যান থেকে তালা ভেঙ্গে আসামিকে ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে- এটি হিন্দি সিনেমার দৃশ্যকেও হার মানিয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সাম্প্রতিক বক্তব্যের সমালোচনা করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ফখরুল সাহেব সংবাদ সম্মেলন করে বলেছেন পুলিশের ওপর হামলাকারীদের তিনি চেনেন না। তারা নাকি বহিরাগত। তার মিথ্যাচার অতীতের সকল রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। এসময় তিনি হাস্যরস করে বলেন, সম্ভবত বিএনপির মিছিলে জাতীয়তাবাদী জ্বিন থাকে এবং সেই জ্বিনেরাই হামলা চালায়।

তিনি বলেন, জিয়া এতিম খানা কোথায় কেউ জানে না। জিয়া এতিমখানা হচ্ছে বেগম জিয়ার ক্যান্টনমেন্টের মঈনুল রোড়ের বাসভবন। সেখানে অবশ্য দুইজন এতিম থাকতেন। একজন এতিম তারেক রহমান আরেকজন এতিম আরাফাত রহমান কোকো।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ব্যারিস্টার জাকির আহমেদের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা অধ্যাপক ফজলুল হক, আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার, শাহাবাগ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি জি এম আতিক, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা, বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক প্রমুখ।