প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :   দ্রুততম সময়ের মধ্যে তফসিলী ব্যাংক হিসেবে কার্যক্রম পরিচালনা করতে যাচ্ছে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক। এই ব্যাংকের মাধ্যমে বৈধ পথে স্বল্প সময়, খরচ ও সহজে দেশে রেমিটেন্স প্রেরণ আরো বৃদ্ধি পাবে।

আজ রাজধানীর ইস্কাটনস্থ প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে পরিশোধিত মূলধন পুর্নগঠনে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড হতে আরও ১শ’ কোটি টাকার চেক প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি এ কথা বলেন।
মন্ত্রী প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহ্তাব জাবিন-এর হাতে এই চেক তুলে দেন।

এ সময় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়েল সচিব ড. নমিতা হালদার, অতিরিক্ত সচিব মো. আমিনুল ইসলাম, ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক গাজী মোহাম্মদ জুলহাস ও প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহ্তাব জাবিন।

এছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক, মো. সেলিম রেজা, বাংলাদেশ ওভারসীজ এমপ্লয়মেন্ট এন্ড সার্ভিসেস লি. (বোয়েসেল)-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মরণ কুমার চক্রবর্তীসহ মন্ত্রণালয়, অধীনস্থ সংস্থাসমূহ ও প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

উল্লেখ্য, বিদেশগামী কর্মী ও প্রত্যাগত কর্মীদের সামাজিকভাবে পুনর্বাসনের লক্ষ্যে সহজ শর্তে ঋণ প্রদান এবং সহজে দেশে রেমিটেন্স আনয়নের লক্ষ্যে ২০১০ সালে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করা হয়। ২০১১ সালে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের ৯৫ কোটি টাকা ও সরকারের পাঁচ কোটি টাকা নিয়ে প্রবাসী কর্মীদের কল্যাণে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের কার্যক্রম শুরু হয়। এ ব্যাংকে তফসিলী ব্যাংক হিসেবে গঠনের সিদ্ধান্ত হয়। সে লক্ষ্যে গতবছরের ১৬ এপ্রিল ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক-কে তফসিলী ব্যাংকে রূপান্তর করতে পরিশোধিত মূলধন পুর্নগঠনে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড হতে ৫০ (পঞ্চাশ) কোটি টাকার চেক প্রদান করে। বর্তমানে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকটিতে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড হতে ২৪৫ কোটি টাকা এবং সরকার হতে ৫ কোটি টাকা প্রদান করা হয়।