প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :   স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে নিখোঁজ নবম শ্রেণির ছাত্রী। মেয়েকে খুঁজে পেতে থানার দ্বারস্থ নিখোঁজ কিশোরীর পরিবার। মেয়ের খবর পেলে থানায় জানাবেন, তদন্তের বদলে কিশোরীর পরিবারকে এমনই আজব পরামর্শ পুলিসের। ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ভারতেরত দক্ষিণ ২৪ পরগনার উস্থিতে।

গত মঙ্গলবার থেকে নিখোঁজ উস্থির চকজায়িদি গ্রামের ১৫ বছর বয়সী আফ্রিনা খাতুন। গ্রামের বাড়িতে দুই ভাই ও মায়ের সঙ্গে থাকত সে। বাবা কর্মসূত্রে অন্যরাজ্যে থাকেন। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার ভাইয়ের সঙ্গেই স্কুলে বার্ষিক কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার নিতে যায় রাজারহাট হাইমাদ্রাসা স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী আফ্রিনা।
তার বন্ধু ও ভাই ফিরে এলেন আফ্রিনা আর বাড়ি ফেরেনি। পরেরদিন সকালে, অর্থাত্ গত বুধবারই উস্থি থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেন আফ্রিনার মা। কিন্তু গত এক সপ্তাহে মেয়ের কোনও খোঁজই দিতে পারেনি পুলিশ।

এখানেই শেষ নয়। এর পরের ঘটনা আরও চাঞ্চল্যকর। এক সপ্তাহ পর সোমবার সকালে আফ্রিনার মাকে আবার ডেকে পাঠায় পুলিশ। এতদিন পর তাঁর কাছ থেকে নিখোঁজ আফ্রিনার ছবি নেয় তারা। আফ্রিনার মায়ের দাবি, ছবি দেওয়ার পর পুলিশ পালটা তাঁকেই বলে, মেয়ের খোঁজ পেলে জানাবেন। খোদ পুলিশেরই এমন পরামর্শ শুনে কার্যত তাজ্জব হয়ে গিয়েছেন নিখোঁজ আফ্রিনার মা মরিয়ান বিবি।

প্রশাসনের এই ভূমিকায় ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তিনি। মেয়েকে হারিয়ে মাঝেমধ্যেই অসুস্থ হয়ে পড়ছেন মারিয়ানা বিবি।