প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :  ভারতের পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক (পিএনবি) থেকে জালিয়াতির মাধ্যমে ১১ হাজার ৪০০ কোটি রুপি গ্রহন করেছিলেন হীরা ব্যবসায়ী নীরব মোদি। তিনি এই অর্থ ফেরত দেবেন না বলে জানিয়েছেন। এক চিঠিতে পিএনবি-কে এ কথা জানান তিনি।

 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে বলছে, মোদি বেআইনিভাবে ঋণ নিয়ে ১১ হাজার ৪০০ কোটি রুপি লোপাট করার অভিযোগের পর থেকে নিখোঁজ রয়েছেন।

 

মোদি জানান, ব্যাংক ঋণের টাকা ফেরত পেতে তাড়াহুড়া করায় তার প্রতিষ্ঠানের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে। এ কারণে তিনি আর টাকা ফেরত দেবেন না। পিএনবির কাছে তার বা তার সংস্থার বকেয়ার অঙ্ক পাঁচ হাজার রুপিও কম।

 

তিনি বলেন, টাকা ফেরত পেতে ব্যাংক অকারণে তাড়াহুড়া করে বিভিন্ন দোকান ও অফিসে তল্লাশি করেছে। এ ছাড়া বিভিন্ন  সংবাদমাধ্যমে খবর প্রচার হয়েছে। এ কারণে আমার ব্যবসা কার্যত বন্ধ হয়ে গেছে। এ অবস্থায় কীভাবে ঋণের টাকা পরিশোধ করা সম্ভব?’

 

মোদি জানান, তার প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ব্যবসা করে কোটি কোটি টাকা আয় করেছে পিএনবি। অথচ তারাই ঋণ বাকি পড়ার কথা প্রচার করে তার ভাই ও স্ত্রীকে জড়িয়েছে।