প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট : সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সানজিদা খানম বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হলে জাতিকে সু-শিক্ষিত হতে হবে। বিগত সরকারগুলো পাঠ্যপুস্তকে অসত্য ইতিহাস লিপিবদ্ধ করে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস নিয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টির অপচেষ্টা করেছে। বর্তমান সরকার সঠিক ইতিহাস তুলে ধরে শিক্ষা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন এনেছে।

 

শনিবার রাজধানীর ধোলাইরপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪৭তম বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

 

অনুষ্ঠানে শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ। আরো বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আতাউর রহমান, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা গাফফার দেওয়ান রাজিব, আওয়ামী লীগ নেতা সফর আলী প্রমুখ।

 

সানজিদা বলেন, একটি জাতি যদি শতভাগ শিক্ষিত থাকে তাহলে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ কখনো মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে না। কারণ তখন সবাই সচেতন থাকে। তিনি বলেন, ৭৫ পরবর্তী সরকারগুলো পুরো জাতিকে অন্ধকারে নিমজ্জিত রেখেছিল। বিভিন্ন স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে চলতো নকলের মহোৎসব।

 

তিনি আরো বলেন, সরকার বঙ্গবন্ধু হত্যার ও রাজাকারদের বিচার করে দেশকে কলংকমুক্ত করেছে। কেউ যদি শিক্ষাঙ্গনকে অপবিত্র ও লেখাপড়ার পরিবেশ নষ্ট করার অপচেষ্টা চালায় তাদেরকে কঠোর হাতে দমন করা হবে।

 

অনুষ্ঠানের শুরুতে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা কুচকাওয়াজ পরিবেশন করেন। অতিথিরা কুচকাওয়াজের সালাম গ্রহণ করেন।

 

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ধোলাইপাড় উচ্চ বিদ্যালয় ছাড়াও ঢাকা-৪ আসনের অধিকাংশ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, গভর্নিং বডির সদস্য ও বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন।