নানা কর্মসুচীর মধ্যে দিয়ে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে নীলফামারীতে বাংলাদেশের স্থপতি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশুদিবস পালিত হচ্ছে।শনিবার (১৭ই মার্চ) সূর্যদয়ের সাথে সাথে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল ৯টায় জেলা শহরের দলীয় কার্যালয়ে বন্ধুবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ ও শিশুদের জন্য চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে।
এরপর একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহর প্রর্দক্ষিন করে। র‌্যালী শেষে স্থানীয় শহীদ মিনার চত্তরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় । সেখানে শিশু কিশোর সমাবেশ ও শিশু মেলার আয়োজন করা হয়।

 

এছাড়াও নীলফামারী শিশু একাডেমি নানা কর্মসূচি গ্রহন করেছে। কর্মসুচির মধ্যে রয়েছে, রচনা প্রতিযোগিতা, চিত্রাংকন, আবৃত্তি, উপস্থিত বক্তৃতা, গল্প বলা, ছড়া প্রতিযোগিতা আয়োজন করেন। মেলা প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর জীবনীর উপর আলোচনা সভা। এ ছাড়া ওই চত্বরে দিনভর চলছে শিশু স্বাস্থ্য সচেতনতা, পুষ্টি ও খাদ্য সর্ম্পকে আলোচনা, চিত্রাঙ্কন, রচনা, গল্প বলা ও নির্ধারিত বক্তৃতা প্রতিযোগীতা।

 

 

জেলা প্রশাসক খালেদ রহীমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ, সাধারন সম্পাদক মমতাজুল হক, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড. আলিমুদ্দিন বসুনিয়া, সাধারন সম্পাদক আবুজার রহমান, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মসফিকুল ইসলাম রিন্টু, জেলা শিশু একাডেমীর কর্মকর্তা মোস্তাক আহমেদ ও শিশুদের পক্ষে শ্রেয়া ঘোষ।এদিকে জেলার ডোমার,ডিমলা,জলঢাকা,কিশোরীগঞ্জ ও সৈয়দপুর উপজেলায় অনুরুপ কর্মসুচি পালিত হচ্ছে।