প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :      কিডনির পাথর থেকে বাঁচতে- আমাদের দেহের রক্ত পরিশোধনের অঙ্গ কিডনি। এছাড়াও শরীরে জমে থাকা অনেক রকম বর্জ্যও পরিশোধিত হয় কিডনির মাধ্যমে। কিডনির নানা সমস্যার মধ্যে সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে কিডনিতে পাথর হওয়া।

কিন্তু ঠিক কি কি কারণে কিডনিতে পাথর হওয়া রোধ করতে পারবেন, জানেন কি? আসুন জেনে নেয়া যাক কিডনিতে পাথর হওয়ার কারণগুলো সম্পর্কে, যা হয়তো আপনার জানা নেই।

কাচা লবন খাবেন না

অনেকেই খাবারে লবণ খান যা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। কারণ লবণের সোডিয়াম খুব সহজে কিডনি দূর করতে পারে না এবং তা জমা হতে থাকে কিডনিতে। এছাড়াও অতিরিক্ত সোডিয়াম সমৃদ্ধ খাবারের কারণেও কিডনিতে পাথর জমার সম্ভাবনা বাড়ে।

পানি পান করুন

কিডনির কাজ হচ্ছে দেহের বর্জ্য ছেঁকে দেহকে টক্সিনমুক্ত করা। আর এই কাজটি কিডনি করে পানির সহায়তায়। যদি আপনি পানি পরিমিত পান না করেন তাহলে কিডনি সঠিকভাবে দেহের বর্জ্য দূর করতে পারে না যা কিডনিতে জমা হতে থাকে পাথর হিসেবে। সুতরাং পরিমিত পানি পান করুন।

আরো খবর পড়ুনঃ 

যে কারণে নাগিন ডান্স বন্ধ করতে বলছেন ড. আসিফ নজরুল

মহেন্দ্র সিং ধোনি, বিরাট কোহলিদের মতো তারকারা নেই। কিন্তু তাতে কী শ্রীলঙ্কায় অনু্ষ্ঠিত ত্রিদেশীয় নিধিহাস ট্রফির ঔজ্জ্বল্য কিন্তু ম্লান হওয়ার নয়। সৌজন্যে অবশ্য বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের সেই ‘‌নাগিন ডান্স’‌। সিরিজ চলাকালীনই শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে একটি ম্যাচে বাংলাদেশ ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম এই কাণ্ড ঘটিয়েছিলেন।

আসিফ,,আর সেই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে কম ‘‌ট্রোলড’ হতে হয়নি। আর শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচে ২ উইকেটে রুদ্ধশ্বাস জয়ের পর একই ঘটনা ঘটিয়েছে গোটা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলই।

আর সেই নিয়েও ফের একবার সোশ্যাল মিডিয়াতে হাসির খোরাকে পরিণত হয়েছেন তাঁরা। তবে এবার আর একা মুশফিকুর নন, গোটা বাংলাদেশই দলের খেলোয়াড় দিয়ে চলছে ‘‌ট্রোল’।

এদিকে এই নাগিন ডান্সের কেউ কেউ আবার করছেন তুমুল সমালোচনা। তাদের মধ্যে রয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ও এক সময়ের নামী সাংবাদিক ড. আসিফ নজরুলও।

তিনি নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে লিখেছেন, ‘আমিও বলি নাগিন নৃত্য বন্ধ হোক এবার। আমরা বাঘ, সাহসী জাতি। সাপের ছলাকলা, বিশ্বাসঘাতকতা আমাদের না।’