প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :  বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (ডাব্লিউটিও) দোহা সম্মেলনে নেওয়া সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়িত হলে বিশ্ব বাণিজ্যের অনেক সমস্যারই সমাধান সম্ভব। ওই সিদ্ধান্ত কার্যকর না হওয়ার কারণে বাংলাদেশসহ স্বল্পোন্নত দেশগুলোর যেসব বাণিজ্য সুবিধা পাওয়ার কথা, উন্নত দেশগুলো সে সুবিধা দিচ্ছে না। তাই সংস্থাটিকে কার্যকর করতে হলে দোহা সম্মেলনে নেওয়া সব সিদ্ধান্তের পূর্ণ বাস্তবায়ন জরুরি।

 

ডাব্লিউটিও নিয়ে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠিত এক অনানুষ্ঠানিক মন্ত্রীপর্যায়ের সম্মেলনে এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। ভারতের বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী সুরেশ প্রভুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সম্মেলনে ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, চীন, জাপান, কানাডা, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া ও ভিয়েতনামসহ ৫৩টি দেশের বাণিজ্যমন্ত্রী বা তাঁদের প্রতিনিধি উপস্থিত থেকে মতামত দিয়েছেন। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আব্দুল লতিফ বকশী এ তথ্য জানিয়েছেন।

 

তোফায়েল আহমেদ বলেন, দোহা সম্মেলনের পাশাপাশি ডাব্লিউটিও হংকং, বালি ও নাইরোবি সমেম্মলনগুলোও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিল। তবে এসবের কোনো বাস্তবায়ন নেই। সংস্থাটির গত মন্ত্রীপর্যায়ের সম্মেলনে এলডিসিভুক্ত দেশগুলোর জন্য শুল্ক ও কোটামুক্ত বাণিজ্য সুবিধা দেওয়া, অগ্রাধিকারমূলক রুলস অব অরিজিন, সার্ভিস ওয়েভার ও প্রযুক্তিগত সহায়তা দেওয়ার মতো প্রতিশ্রুতিগুলোর বাস্তবায়ন খুবই প্রয়োজন। অনেক ক্ষেত্রেই এগুলোর পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন হয়নি।

 

তোফায়েল আহমেদ বলেন, এ অবস্থায় ডাব্লিউটিওকে কার্যকর করতে নতুন করে ভাবতে হবে। তবে নতুন কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আগের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে হবে। স্বল্পোন্নত দেশগুলোর (এলডিসি) বাণিজ্য সক্ষমতা কম, ক্রমেই পিছিয়ে পড়ছে রপ্তানি বাণিজ্যে। বিশ্বের রপ্তানি বাণিজ্যে স্বল্পোন্নত দেশগুলোর অবদান শতকরা ১ ভাগেরও কম। দারিদ্র্যবিমোচন ও শিল্পায়নের জন্য এলডিসিগুলোর খাদ্য নিরাপত্তা, প্রযুক্তিগত দক্ষতা বৃদ্ধি ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অবদান রাখার সুযোগ দেওয়া দরকার।