প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :    প্রেম ছাড়া শরীর হয় না বলে যাঁরা বিশ্বাস করেন, তাঁদের ধারণাকে রীতিমতো ভুল প্রমাণ করে দিয়েছে এই সমীক্ষা। ওই সমীক্ষক দল ৩৭১ জন মার্কিন কলেজ পড়ুয়ার ১২ সপ্তাহের ডায়েরি নিয়ে তথ্য সংগ্রহ করে।

 

পার্টিতে পরিচয়। ভাললাগা। তা-র-প-র।

কে কী ভাবল, তা তুড়ি মেড়ে উড়িয়ে দিতে পরলে মন্দ নয়। সমীক্ষা বলছে, এক রাতের ‘অচেনা-সঙ্গ’ দেহ-মন তরতাজা করে দেয়। গবেষকদের বক্তব্য, দায়হীন সম্ভোগে জাগে এক অন্য তৃপ্তি। আর তার প্রভাব পড়ে শরীরে। স্বাস্থ্যের পক্ষে যা অত্যন্ত ভাল।

সম্প্রতী এ নিয়ে একটি সমীক্ষা চালায় আমেরিকার দুই নামি বিশ্ববিদ্যালয়। কর্নেল ইউনিভার্সিটি ও নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটির যৌথ সমীক্ষা বলছে, এমন এক রাতের সহবাস সব থেকে বেশি উপকারী পুরুষদের জন্য। শুধু স্বাস্থ্যই নয় মনের জন্যও দরকারী এক রাতের শরীর-যাপন। বিশেষ করে যাঁরা অবসাদ ও উদ্বেগে ভোগেন তাঁদের কাছে তো মেডিসিনের মতো কাজ করে ওয়ান ডে স্ট্যান্ড।

প্রেম ছাড়া শরীর হয় না বলে যাঁরা বিশ্বাস করেন, তাঁদের ধারণাকে রীতিমতো ভুল প্রমাণ করে দিয়েছে এই সমীক্ষা। ওই সমীক্ষক দল ৩৭১ জন মার্কিন কলেজ পড়ুয়ার ১২ সপ্তাহের ডায়েরি নিয়ে তথ্য সংগ্রহ করে। তাতে দেখা গিয়েছে, যাঁরা উদ্দাম যৌনতায় মাতেন, তাঁরাই শরীর ও মনের দিক থেকে বেশি তরতাজা। তাঁদের মধ্যে উদ্বেগ কিংবা হতাশা নেই। নেই লেশমাত্র অবসাদ।

আর যাঁদের শরীর নিয়ে ছুৎমার্গ আছে, তাঁদের মধ্যেই অবসাদ, হতাশা, উদ্বেগ বেশি। সমীক্ষা বলছে, পুরুষদের মতো নারীরাও এক রাতের শরীর-বিনিময়ে বেশি প্রাণবন্ত থাকেন। আর এটা ব্যক্তিত্ব বাড়াতেও যথেষ্ট কাজ করে।