প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট : গুটিকয়েক মানুষজন বাদে প্রায় সকলের কাছেই ভালোবাসা বেশ পবিত্র একটি বিষয়। অনেক সাধ ও আকাঙ্ক্ষার একটি ব্যাপার হচ্ছে ভালোবাসা। মানুষ জীবনে প্রেমে পড়তে পারে অনেকবারই, কিন্তু ভালোবাসেন শুধুমাত্র একজনকে। ভালোবাসা জিনিসটি এমন, যে এটি কখনোই একজনের বেশি কারো সাথে হয় না। যতোই বলা হোক না কেন, আসলে দ্বিতীয়বারে আর আগের মতো এতো বেশি ভালোবাসা আসে না। আর যদি আসে তাহলে প্রথমটা প্রেম ছিল, ভালোবাসা নয়।

এই সকল তথ্যগুলো অনেক গবেষণা এবং জরিপের ফলাফল। এরকমই আরও বেশ কিছু তথ্য রয়েছে যা সম্পর্কে অনেকেই জানেন না। চলুন তবে দেখে নেয়া যাক ভালোবাসা সম্পর্কে ৮ টি মজার অজানা তথ্য।

 

তথ্য-১.
জানেন কি, ‘love’ শব্দটির উৎপত্তি কোথায়? “love” শব্দটি এসেছে সংস্কৃত ‘lubhyati’ (লুভায়াটি) থেকে। এর অর্থ হচ্ছে ইচ্ছা। এই শব্দটির ব্যবহার সব চাইতে বেশি মিউজিক জগতে।

তথ্য-২.
একজন মানুষ কতবার প্রেমে পরে জানেন কি? বিয়ের আগে ও পরের হিসাবও কিন্তু বেশ ভিন্ন। বিভিন্ন গবেষণা এবং পরিসংখ্যানে দেখা গিয়েছে যে, প্রত্যেক ছেলে মানুষ বিয়ের আগে অন্তত ৭ বার প্রেমে পড়েন এবং মেয়েরা পড়েন ৪ বার।

 

তথ্য-৩.
বিয়ের আঙটি কোন আঙুলে পড়ানো হয় জানেন তো। খেয়াল করে দেখবেন বিয়ের আঙটি সব সময় অনামিকা আঙুলে পড়ানো হয়। এর কারণটা কি জানেন? এর কারণ হচ্ছে অনামিকা আঙুলের সাথে আমাদের হৃৎপিণ্ডের এর সংযোগ রয়েছে বলে ধরা হয়। যদিও মজার ব্যাপার হচ্ছে, ভালোবাসার ক্ষেত্রে হৃৎপিণ্ডের কোনো ব্যবহারই ণেই!

 

তথ্য-৪.
যখন একটি দম্পতি এবং প্রেমিকজুগল সামনে থাকেন তখন অনেক মেয়েই ছেলেটি বেশি সুন্দর হলে মনে মনে ভাবেন- “ছেলেটি এই মেয়েটাকে কেন পছন্দ করল!” জানেন কি, ছেলেদের আগ্রহ কোন মেয়েদের প্রতি বেশি থাকে? জরিপে দেখা যায় ছেলেরা সেই সব মেয়েদের প্রতি বেশি আগ্রহী যারা সুন্দর করে হাসতে জানেন।

 

তথ্য-৫.
সকালে অফিস যাওয়ার আগে অনেক দম্পতিরা একে অপরকে চুম্বন করে ভালোবাসা প্রকাশ করে থাকেন। কিন্তু এটি শুধুমাত্র ভালোবাসা প্রকাশের সাথেই সম্পর্ক যুক্ত নয়। হেলথ এক্সপার্টদের মতে যে স্বামী-স্ত্রী তার সঙ্গীকে প্রতিদিন সকালে চুম্বন করেন সে অন্যদের চেয়ে পাচঁ বছর বেশি বাচেঁন।

 

তথ্য-৬.
যারা নতুন নতুন প্রেমে পড়ে তাদের দেহে সেরেটোনিন নামক এক প্রকার হরমোন উৎপন্ন হওয়া কমে যায়। সেরেটোনিন আমাদের মন খুশি রাখার জন্য দায়ী একটি হরমোন। যার ফলে মন কিছুটা উদাস থাকে বা বিষণ্ণতায় ভোগে!

 

তথ্য-৭.
বেশিরভাগ সাধারণ প্রেমের সম্পর্কের ভাঙন হয়ে থাকে সম্পর্ক গড়ার মাত্র ৫-৬ মাসের মধ্যে।

 

তথ্য-৮.
প্রকৃত প্রেমিক চিনতে অনেক মেয়েরাই ভুল করে থাকেন। তাদের জন্য একটি জরিপ করা হয় ২০১২ সালে। সেই জরীপে দেখা যায় যারা প্রকৃত প্রেমিক তারা চুম্বন করার সময় ডান গাল থেকে চুম্বন শুরু করেন।