প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :        ব্যর্থতা দিয়ে কমনওয়েলথ গেমসের মিশন শুরু করেছে বাংলাদেশ ভারোত্তলক দল। আজ গেমেসের দ্বিতীয় দিনে প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নেমে দেশকে কোনো সুখবরই দিতে পারেনি বাংলাদেশ দলের তিন ভারোত্তলক। অস্ট্রেলিয়ার গোল্ড কোস্টের কারারা স্পোর্টস এন্ড লেইজার সেন্টারে অনুষ্ঠিত লড়াইয়ে খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি টাইগার দলের তিন ভারোত্তোলক শিমুল কান্তি সিনহা, ফুলপতি চাকমা ও ফাহিমা আক্তার ময়না।

 

স্থানীয় সময় বিকাল ৫টায় পুরুষ ভারোত্তোলনের ৬৯ কেজি ওজন শ্রেণীর খেলা। এতে লাল-সবুজ দলের শিমুল কান্তি সিনহা অংশ নিয়ে চরমভাবে ব্যর্থ হন। এই ইভেন্টে ১৪ জনের মধ্যে ১৩ তম স্থান লাভ করেন শিমুল। স্ন্যাচে প্রথমবার ১১৫ কেজি ভার তুললেও পরের দুইবার ১২০ কেজি তুলতে গিয়ে ব্যর্থ হন তিনি। ক্লিন এন্ড জার্কে ১৪০ কেজি তুলতে গিয়ে টানা তিনবারই ব্যর্থ হন শিমুল। এই ওজন শ্রেণীতে ওয়েলসের গ্রেথ ইভান্স মোট ২৯৯ কেজি ভার তুলে স্বর্ণপদক জিতে নেন। তিনি স্ন্যাচে ১৩০, ১৩৩ ও ১৩৬ কেজি তুলেন। ক্লিন এন্ড জার্কে ১৬০ ও ১৬৩ কেজি তুললেও ব্যর্থ হন ১৬৫ কেজি ভার তুলতে। তারপরও স্বর্ণ পদকটি ঠিকই তার দখলে চলে যায়। এতে শ্রীলঙ্কার ইন্দ্রিকা সি দিশানায়েক রৌপ্য ও ভারতের দীপক লেদার পান ব্রোঞ্জপদক।

এর আগে সকালে একই ভেন্যুতে মেয়েদের ৫৩ কেজি ওজন শ্রেণীতে বাংলাদেশের ফুলপতি চাকমাও হন ব্যর্থ। তিনি ১৪ জনের মধ্যে ১২তমস্থান লাভ করেন। ফুলপতি স্ন্যাচে তুলেন যথাক্রমে ৬২, ৬৬ ও ৬৮ কেজি ভার। ক্লিন এন্ড জার্কে ৮০ ও ৮৫ কেজি তুললেও ৮৬ কেজি তুলতে গিয়ে অসহায় আত্মসমর্পণ করেন। এই ইভেন্টের স্বর্ণ গেছে ভারতের ঘরে।

ভারতীয় ভারোত্তোলক সঞ্জিতা চানু স্ন্যাচে ৮১, ৮২ ও ৮৩ কেজি ভার তুলে নতুন গেমস রেকর্ড গড়েন। ক্লিন এন্ড জার্কে তিনি ১০৪ ও ১০৮ কেজি তুললেও ১১২ কেজি তুলতে গিয়ে ব্যর্থ হন। তবে এতেই নিশ্চিত হয়ে স্বর্ণপদক। মোট ভার তুলেন ১৯২ কেজি। তার চেয়ে ৩৯ কেজি কমে ফুলপতি চাকমা মোট ভার তুলেন ১৫৩। এই ইভেন্টে পাপুয়া নিউগিনির লোরা দিকা তোয়া রৌপ্য ও কানাডার রাসেল লেবলাংক জিতে নেন ব্রোঞ্জপদক।

সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত নারী ভারোত্তোলনের ৫৮ কেজি ওজনশ্রেণীতে বাংলাদেশের ফাহিমা আক্তার ময়না দারুণ শুরুর আভাস দিলেও যথারীতি ব্যর্থ হয়েছেন। তিনি স্ন্যাচে ৬৩ ও ৬৬ কেজি ভার তুললেও অল্পের জন্য ব্যর্থ হন ৬৯ কেজি তুলতে। ক্লিন এন্ড জার্কে ময়না তুলেন ৮০, ৮৫ ও ৮৮ কেজি ভার। ফলে ১৫ জন প্রতিযোগির মধ্যে তার জায়গা হয় ১৩তমস্থানে। এই ইভেন্টে স্বর্ণপদক জিতে নেন স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার টিয়ে ক্লার টমি। স্ন্যাচে ৮০, ৮৪ ও ৮৭ কেজি এবং ক্লিন এন্ড জার্কে ১০৭, ১১১ ও ১১৪ কেজিসহ মোট ২০১ কেজি ভার তুলে সেরা হন তিনি। কানাডার টালি রৌপ্য এবং সোলোমান আইল্যান্ডের জেনলি উইনি ব্রোঞ্জপদক জিতেন।

আগামীকাল শনিবার নিজের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করতে ভার তুলবেন গৌহাটি-শিলং সাউথ এশিয়ান গেমসে বাংলাদেশের পক্ষে প্রথম স্বর্ণজয়ী ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার সিমান্ত। কারারা স্পোর্টস এন্ড লেইজার সেন্টারে তিনি ৬৩ কেজি ওজনশ্রেণীতে লড়বেন।