প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :     রাজধানীর কারওয়ান বাজা‌রে দুই বাসের চাপে তিতুমীর কালেজের স্নাতকের ছাত্র রাজীব হোসেনের হাত হারানোর মামলায় দুই বাসচালকের জামিন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। আসামিরা হলেন- বিআরটিসি বাসের চালক ওয়াহিদ (৩৫) ও স্বজন বাসের চালক খোরশেদ (৫০)। আজ সোমবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জামিনের আবেদন করেন তাদের আইনজীবী মোহাম্মদ ইউনুস ও হেলাল উদ্দিন পাটোয়ারী।

 

শুনানি শেষে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নুরুন্নাহার ইয়াসমিন তাদের জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করেন। ওয়াহিদের পক্ষে তার আইনজীবী মোহাম্মদ ইউনুস ও খোরশেদের পক্ষে হেলাল উদ্দিন পাটোয়ারী জামিন শুনানি করেন। এর আগে গত ৫ এপ্রিল বিআরটিসি বাসের ড্রাইভার অহেদ আলী ও স্বজন বাসের ড্রাইভার খোরশেদকে দুই দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছিলেন আদালত। ৮ এপ্রিল তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

গত ৩ এপ্রিল রাজীব বিআরটিসির একটি দোতলা বাসে পেছনের ফটকে দাঁড়িয়ে গন্তব্যে যাচ্ছিলেন। কারওয়ান বাজারে হোটেল সোনারগাঁওয়ের বিপরীতে পান্থকুঞ্জ পার্কের সামনে একটি বিআরটিসি বাস ও স্বজন বাসের পাল্লাপাল্লিতে দুই বাসের চিপায় পড়ে হাত হারান সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাজিব হোসেন।

তাকে উদ্ধার করে পান্থপথের শমরিতা হাসপাতালে ভর্তি করা হয় অবস্থার অবনতি হলে পর দিন তাকে ঢামেক হাসপাতালে নেয়া হয়। সংকটাপন্ন রাজীব এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন।  এ ঘটনায় গত ৪ এপ্রিল দুই বাস চালক‌কে গ্রেপ্তার করে শাহবাগ থানা পুলিশ।