প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :     সুন্দরবনের ভিতরে আবারো কয়লাবাহী জাহাজডুবির ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)। সিপিবির পক্ষ থেকে দ্রুত নদী থেকে কয়লা উদ্ধার ও দূষণ বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয়েছে।

 

আজ সোমবার এক বিবৃতিতে সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম বলেন, সুন্দরবনের মধ্যে দিয়ে কয়লাসহ পণ্যবাহী জাহাজ চলাচল যে ঝুঁকিপূর্ণ এবং এর ফলে সুন্দরবন যে ক্ষতিগ্রস্ত হবে তা আমরা অনেক আগে থেকেই বলে এসেছি। এটি উপেক্ষা করে বারবার কয়লাবাহীসহ পরিবেশ দূষণকারী পণ্য নিয়ে জাহাজ চলাচল করছে। গত ১৪ এপ্রিল সুন্দরবনের ভিতরে মংলা সমুদ্র বন্দরে পশুর চ্যানেলে হাড়বাড়িয়া এলাকায় ৭৭৫ মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে এমভি বিলাস নামের লাইটার জাহাজ ডোবার মধ্যে দিয়ে এই আশঙ্কা আবারো সত্যে পরিণত হয়েছে।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, জনমত উপেক্ষা করে এমনিতেই সুন্দরবনের পাশে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণ, বড় বড় শিল্প কল-কারখানা গড়ে তোলা এবং বেআইনিভাবে লাল ক্যাটাগরির শিল্প স্থাপনাকে সবুজ দেখিয়ে ছাড়পত্র দেওয়াসহ নানাবিধ কারণে সুন্দরবন ধ্বংসের মুখে পড়েছে। এরপর নদী দিয়ে অবাধে পণ্যবাহী জাহাজ চলাচলের কারণে সুন্দরবনের জীব-বৈচিত্র্যের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। একাধিকবার কয়লা ও তেলবাহী জাহাজডুবি পুরো সুন্দরবনের জীব-বৈচিত্র্যকে হুমকির মুখে ফেলছে। অবস্থার দৃষ্টিতে মনে হচ্ছে, সরকার মুখে সুন্দরবন রক্ষার কথা বললেও কার্যত সুন্দরবনকে পরিত্যাক্ত ঘোষণা করেছে।

বিশ্বঐতিহ্য সুন্দরবন রক্ষায় সব মহলকে সোচ্চার হওয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।