প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :    টানা তিন ঘণ্টা গোয়েন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদেরমুখে ছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটার মোহাম্মদ শামি। এই প্রথম বিষয়টি নিয়ে পুলিশের মুখোমুখি হলেন তিনি। স্ত্রী হাসিন জাহানের অভিযোগে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

 

বুধবার বেলা পৌনে ২টার দিকে লালবাজারে ঢোকেন শামি। পুলিশি জেরা চলে বিকাল সোয়া ৫টা পর্যন্ত। শামিকে লালবাজারে তলব করে আগেই নোটিশ পাঠিয়েছিল পুলিশ। কলকাতার একটি পাঁচতারা হোটেলে এসে উঠেছিলেন তিনি। বুধবার দুপুরে সেখান থেকেই নিজের আইনজীবীকে সঙ্গে নিয়ে লালবাজারের পৌঁছান শামি।

তবে শামিকে জেরা করার আগেই তার ভাই মোহাম্মদ হাসিবকে জেরা শুরু করেছেন গোয়েন্দারা। মঙ্গলবার শামিকে সমন পাঠানোর আগেই ডেকে পাঠানো হয়েছিল হাসিবকে।

বুধবার দুপুর ১২টায় লালবাজারে পৌঁছান হাসিব। তাকে নিয়ে যাওয়া হয় গোয়েন্দা বিভাগে। সেখানে ডিসি ডিডি নিলু শেরপা চক্রবর্তীর নেতৃত্বে গোয়েন্দারা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে।

হাসিন জাহানের করা অভিযোগে, শামির ভাই-ই প্রধান অভিযুক্ত। হাসিন তার বিরুদ্ধেই ধর্ষণের অভিযোগ করেছিলেন। এর আগে কলকাতা পুলিশের দল দেশটির উত্তরপ্রদেশে তদন্তে গেলে, গাঢাকা দিয়েছিলেন হাসিব।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, হাসিনের অভিযোগ নিয়ে টানা জেরা করা হচ্ছে হাসিবকে। বুধবারই তার বয়ান রেকর্ড করেন গোয়েন্দারা। একই দিন ডেকে পাঠানো হয়েছে সামিকেও। কিন্তু শামি আদৌ লালবাজারে আসবে কি না, তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছিল।

শামির ম্যানেজার আগে জানিয়েছিলেন, শামি নিজে না এসে তার আইনজীবীকে পাঠাবেন। তবে শেষ পর্যন্ত তার আইনজীবীকে সঙ্গে নিয়েই লালবাজারে যান শামি।