প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :    বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) আগামী সিজনে দলগুলোর একাদশে বিদেশি ক্রিকেটারের সংখ্যা কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। গত আসরে একাদশে সর্বোচ্চ পাঁচজন বিদেশি ক্রিকেটার খেলাতে পারার নিয়ম নিয়ে প্রবল সমালোচনা হয়েছিল। এবার সেই জায়গা থেকে সরে এসে একাদশে সর্বোচ্চ চারজন বিদেশি ক্রিকেটার খেলানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি।

 

আজ বুধবার বিসিবির পরিচালনা পর্ষদের সভায় বিপিএল শুরুর সম্ভাব্য সময় হিসেবে অক্টোবরের কথা বলেছেন বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন। এছাড়া বিপিএল নিয়ে হয়েছে আরও বেশ কিছু সিদ্ধান্ত। প্রতিটি দল এবার ৪ জন করে ক্রিকেটার ধরে রাখতে পারবে। এই ৪ জন হতে পারে দেশি-বিদেশি যে কেউ। এমনকি আইকন বা ‘এ’ প্লাস ক্যাটেগরির ক্রিকেটারদেরও ধরে রাখা যাবে।

সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি প্রধান বলেন, ‘বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল থেকে প্রস্তাব এসেছিল। সর্বসম্মতিক্রমে সেটা পাশ হয়েছে। গতবার ৫ জন বিদেশি খেলেছিল একাদশে। এবার সেটা আমরা কমিয়ে এনেছি। সর্বোচ্চ চারজন খেলতে পারবে প্রতি দলের একাদশে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এবারের বিপিএলের জন্য আমরা অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহ থেকে নভেম্বরের মাঝামাঝি পর্যন্ত সময় চূড়ান্ত করেছি। প্রস্তাবিত তারিখ ছিল ৫ অক্টোবর থেকে ১৫ নভেম্বর। আমরা সেখানে বলেছি যে ১ অক্টোবর থেকে শুরু করা যায় কিনা। ওখানে ৪-৫ দিন আগে হলে পরে কিছুটা সময় পাওয়া যাবে।’

বিপিএল শেষেই পূর্নাঙ্গ সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসার কথা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের। অক্টোবরে বিপিএল এগিয়ে আনার জন্য এটাকেই বড় কারণ বললেন নাজমুল। ক্রিকেটার ধরে রাখা নিয়ে তিনি বলেন, ‘কতজন ক্রিকেটার ধরে রাখা যাবে, এটা নিয়ে প্রতিবারই সংশয় সৃষ্টি হয়। এবার তাই আগেই ঠিক করে ফেলেছি আমরা। দেশি হোক বা বিদেশি, চারজন করে ক্রিকেটার ধরে রাখতে পারবে প্রতি দল। চারজনই দেশি হতে পারে, বা চারজনই বিদেশি। কিংবা মিলিয়েও হতে পারে।’