প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :     পিরোজপুরে এক গৃহবধূকে হত্যা মামলায় এক নারীসহ দুইজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। যাবজ্জীবনের পাশাপাশি তাদের ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয়মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। মঠবাড়িয়া উপজেলার চিত্রা গ্রামের ফারুক ফরাজীর স্ত্রী মমতাজ বেগমকে নয় বছর আগে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়। আজ সোমবার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক এসএম জিল্লুর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।

 

দণ্ডিতরা হলেন- মঠবাড়িয়া উপজেলার হোতাখালী গ্রামের বাবুল হোসেনের ছেলে আলামিন আমিন সরদার ওরফে আকাশ (২৮) ও মঠবাড়িয়া উপজেলার জাহাঙ্গীর মৃধার মেয়ে মুকুল আক্তার (২৭)। আসামিরা পলাতক রয়েছেন। মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, মঠবাড়িয়া উপজেলার চিত্রা গ্রামের ফারুক ফরাজীর স্ত্রী মমতাজ বেগমকে ২০০৯ সালের ২১ নভেম্বর জরুরি কাজের কথা বলে আলামিন ও মুকুল বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যান।

পরে ভাণ্ডারিয়া উপজেলার গোলবুনিয়া গ্রামের একটি ধানক্ষেতে নিয়ে মমতাজকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন তারা। এ ঘটনায় মমতাজের স্বামী ২০০৯ সালের ২২ নভেম্বর বাদী হয়ে হত্যা মামলা করলে পুলিশ আলামিন ও মুকুলকে গ্রেপ্তার করে। তদন্ত শেষে ২০১০ সালের ০৮ ফেব্রুয়ারি পুলিশ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করলে মামলার বিচারকাজ শুরু করে আদালত।