প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :     আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে রাজধানীর বাড্ডায় দুপক্ষের গোলাগুলিতে এক যুবক নিহতের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

গতকাল মঙ্গলবার রাতে বাড্ডার চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর বাদী হয়ে এ হত্যা মামলা করেন। এতে তিনি ২৭ জনকে আসামি করেন।

এ বিষয়ে বাড্ডা থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী সাংবাদিকদের জানান, বাড্ডার চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর বাদী হয়ে ফারুক আহমেদ ওরফে ভাগ্নে ফারুককে এক নম্বর আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেছে।

উল্লেখ্য, আগামী সিটি কর্পোরেশন কাউন্সিলর মনোনয় নিয়ে ফারুক গ্রুপ ও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলমের মধ্যে রিরোধ চলছিল। এর সূত্র ধরে দুই গ্রুপের মধ্যে গত কয়েকদিন ধরে গণ্ডগোল চলে আসছে। এর জের ধরে ওইদিন বিকাল ৫টার দিকে দুই গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলি শুরু হয়। এক পর্যায়ে জাহাঙ্গীর গ্রুপের কামরুজ্জামান গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাকে স্থানীয় অ্যাপোলো হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত ব্যক্তি ভাটারা থানার বেরাইদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমের চাচাতো ভাই।