প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :  গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মোঘরখাল এলাকার সাড়ে তিন বছর বয়সি শিশু সাদিয়া আক্তার হত্যা মামলায় এক আসামির মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে আসামিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। দণ্ডপ্রাপ্ত ফারুক মোল্লা বর্তমানে পলাতক রয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকালে গাজীপুরের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক এ কে এম এনামুল হক এ দণ্ডাদেশ দেন।

 

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হলেন-রাজশাহীর বাঘা থানার কালিদাসখালী এলাকার ওয়াছিন মোল্লার ছেলে ফারুক মোল্লা (৩১)। তিনি গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মোগরখাল এলাকার ফজলু মিয়ার বাড়িতেভাড়া থেকে গার্মেন্টসে চাকরি করতেন। আদালত সূত্রে জানা যায়, মোঘরখাল এলাকার শাহজাহান ওরফে সাজুর বাড়িতে প্রথমে ভাড়া থাকতেন দণ্ডপ্রাপ্ত ফারুক মোল্লা। নানা কারণে বাড়ির মালিক শাহজাহান আসামি ফারুককে বাড়ি থেকে বের করে দেন।

এক পর্যায়ে ফারুক ওই এলাকার ফজলু মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থেকে গার্মেন্টসে চাকরি করা শুরু করেন। পরে ২০১২ সালের ১৯ অক্টোবর রাতে শাহজাহানের বাড়িতে ঢুকে তার মেয়ে সাদিয়াকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যান ফারুক। এ ঘটনায় সাদিয়ার মা দুলালী বেগম বাদী হয়ে জয়দেবপুর থানায় একটি মামলা করেন। পুলিশ মামলার তদন্ত শেষে আদালতে তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে।দীর্ঘ শুনানির পর আদালত বৃহস্পতিবার এ রায় দিয়েছেন। তবে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি পলাতক রয়েছেন।