প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :     পষ্টিগুণের দিক দিয়ে আমের কোনো তুলনা হয় না। তবে আম খাওয়ার কিছু ভালো ও মন্দ বিষয় আছে। এ নিয়েই আজকের টিপস

 

পুষ্টিগুণ

আমের পুষ্টিগুণের শেষ নেই। এতে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি, আয়রন, কপার ও পটাসিয়াম। তবে পাকা আমে এসব উপাদান বেশি আছে। পাশাপাশি উচ্চ মাত্রার চিনি, কার্বোহাইড্রেট ও গ্লাইসেমিক আছে। এ ছাড়া আমে থায়ামিন, রিবোফ্লাভিন, ভিটামিন এ বা বিটা ক্যারোটিনের মতো উপাদান আছে।

উদ্যম বাড়ায়

আমে থাকা শর্করা উদ্যমী করে তোলে। সারা দিন উদ্যম ধরে রাখতে আমের জুড়ি নেই।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

আমে থাকা ভিটামিন সি দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এ ছাড়া আছে প্রচুর পরিমাণে আঁশ, যা পরিপাকতন্ত্রের সহায়ক।

ওজন বাড়ায়

একটি মাঝারি সাইজের আমে ১৫০ ক্যালরি রয়েছে। এ কারণে যাদের ওজন বেশি বা ক্যালরির প্রয়োজন নেই, তাদের মিষ্টি আম খেতে সতর্ক থাকতে হবে। বিশেষ করে সকালের দিকে বা বিকেলের আগেই তা খেয়ে নিতে হবে। রাতে খাওয়া যাবে না।

ডায়াবেটিক রোগী হলে

রক্তের সুগার নিয়ে যাদের সমস্যা আছে, তাদের খুব বেশি পাকা আম খাওয়া ঠিক নয়। পাকা আমে চিনির পরিমাণ বেশি থাকার কারণে শরীর খারাপ হওয়ার শঙ্কা থাকে। এ ছাড়া যাদের কিডনির সমস্যা আছে, তাঁদেরও বেশি আম খাওয়া উচিত নয়।