প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :   মুমূর্ষু রোগীর জন্য সবসময়ই বিশেষ সেবার দরকার হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষেরও এটাই করা উচিত। কিন্তু কোমায় চলে যাওয়া মুমূর্ষু এক রোগীর চোখ ইঁদুর খেয়ে যায়; এর চেয়ে ভয়ানক ব্যাপার আর কী হতে পারে! অবিশ্বাস্য হলেও এমনটাই ঘটেছে ভারতের মুম্বাইয়ের যোগেশ্বরী এলাকার এক হাসপাতালে।

 

কলকাতার দৈনিক এবিপি আনন্দ জানিয়েছে, কোমায় থাকা ২৭ বছরের ওই রোগীর নাম পরমিন্দর গুপ্ত। তার বাবা অভিযোগ করেছেন, হাসপাতালের ইঁদুর তার ছেলের ডান চোখের মণি খেয়ে নিয়েছে। যদিও হাসপাতাল অস্বীকার করেছে তাদের গাফিলতির কথা।

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত পরমিন্দরের মাথায় জমাট বাঁধা রক্ত বের করতে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার হলেও তার জ্ঞান ফেরেনি। এদিকে হাসপাতালের বিল ৬ লাখ টাকা ছাড়িয়ে যাওয়ায় গম ভাঙানোর দোকানের কর্মী পরমিন্দরের বাবা ছেলেকে সরকারি বাল ঠাকরে ট্রমা কেয়ার সেন্টারে ভর্তি করান।

বাবা রাম গুপ্তের অভিযোগ, ছেলে কোমায় থাকলেও বাল ঠাকরে হাসপাতালের চিকিৎসকরা আইসিইউ থেকে জেনারেল ওয়ার্ডে সরিয়ে দেন তাকে। গতরাতে তিনি দেখেন, ছেলের খাটে দুটো ইঁদুর ঘুরছে, তিনি তাড়িয়ে দেন। এরপর আজ সকালে হাসপাতালে এসে দেখেন, ছেলের ডান চোখ থেকে রক্ত পড়ছে। হাসপাতাল কর্মীদের অবহেলার কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে বলে তার অভিযোগ।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অবশ্য এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে। তাদের দাবি, হাসপাতালকে বদনাম করার জন্য ষড়যন্ত্র করে এমন ঘটনা ঘটানো হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে মুম্বাই জেলা প্রশাসন।